[QnA] সপ্তম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান সপ্তম অধ্যায় প্রশ্ন উত্তর । পরিবেশের সংকট, উদ্ভিদ ও পরিবেশের সংরক্ষণ । Class 7 science chapter 7

সপ্তম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান এর সপ্তম অধ্যায় প্রশ্ন উত্তর । পরিবেশের সংকট, উদ্ভিদ ও পরিবেশের সংরক্ষণ । Class 7 science chapter 7

আজকে আমরা সপ্তম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান এর সপ্তম অধ্যায়ের প্রশ্নোত্তর নিয়ে আলোচনা করব। পরিবেশের সংকট উদ্ভিদ ও পরিবেশের সংরক্ষণ নামক এই অধ্যায়ের আলোচ্য বিষয় গুলি হল জলবায়ুর পরিবর্তন জীববৈচিত্র্যের সংখ্যা হ্রাস, বর্জ্য ও মানব স্বাস্থ্যের ঝুঁকি, পরিবেশ রক্ষায় গাছের ভূমিকা ।

সপ্তম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান এর সপ্তম অধ্যায় প্রশ্ন উত্তর


সপ্তম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান এর সপ্তম অধ্যায় প্রশ্ন উত্তর

জলবায়ুর পরিবর্তন

1. আবহাওয়া কাকে বলে?

উত্তরঃ আবহাওয়া হচ্ছে এমন একটা বায়ুমণ্ডলীয় অবস্থা যেখানে রোদ, ঝড়, বৃষ্টি, জল দিনে দিনে, ঘন্টায় ঘন্টায় এমনকি মুহূর্ত মুহূর্তের বদলায়।

2. জলবায়ু কাকে বলে?

উত্তরঃ জলবায়ু হচ্ছে আবহাওয়ার দীর্ঘ সময়ের গড় অবস্থা। সাধারণত ২৫-৩০ বছরের আবহাওয়ার গড় অবস্থায় হচ্ছে জলবায়ু।

3. আবহাওয়া ও জলবায়ুর পার্থক্য লেখ।

বৈশিষ্ট্য আবহাওয়া জলবায়ু
পরিবর্তনশীলতা আবহাওয়া প্রতিদিন এমন কি ঘন্টায় ঘন্টায় পরিবর্তিত হতে পারে। জলবায়ু একটা দীর্ঘ সময়ের ব্যবধানে পরিবর্তিত হয়।
বিস্তার স্বল্পপরিসর জায়গায় বিস্তৃত হয়ে থাকে। বিস্তীর্ণ অঞ্চলে বিস্তৃত হয়ে থাকে।
উপাদান আবহাওয়ার প্রধান উপাদান গুলি হল উষ্ণতা, আদ্রতা, বায়ুর চাপ, বায়ুপ্রবাহ, বৃষ্টিপাত ও মেঘাচ্ছন্নতা প্রভৃতি। জলবায়ুর প্রধান দুটি নিয়ন্ত্রক বা উপাদান হল বৃষ্টিপাত ও তাপমাত্রা।
প্রভাব আবহাওয়া মানুষের প্রতিদিনের জীবনে প্রভাব ফেলে। জলবায়ু বিস্তীর্ণ অঞ্চলের মানুষের জীবন প্রণালী, কৃষিকাজ, স্বাস্থ্য ও অর্থনীতির উপর প্রভাব ফেলে।
অধ্যায়ন আবহাওয়া সম্পর্কিত অধ্যায়নকে বলা হয় আবহবিদ্যা বা মেটিওরোলজি। জলবায়ু সম্পর্কিত অধ্যয়নকে বলা হয় জলবায়ু বিদ্যা বা ক্লাইমেটোলজি।

4. আবহাওয়া ও জলবায়ু কি কি বিষয়ের উপর নির্ভর করে?

উত্তরঃ আবহাওয়া ও জলবায়ু ওই স্থানের উষ্ণতা, আর্দ্রতা, বৃষ্টিপাত, বায়ুর চাপ, বায়ু প্রবাহ,  মেঘাচ্ছন্নতা ইত্যাদির উপর নির্ভর করে।

5. আম গাছে কখন মুকুল আসে?

উত্তর: প্রধানত ফেব্রুয়ারি মাসেই আম গাছে মুকুল আসে।

6. বাইরের দেশ থেকে পরিযায়ী পাখিরা কখন এদেশে আসে?

উত্তর: বাইরের দেশ থেকে পরিযায়ী পাখিরা শীতকালে এদেশে আসে

7. ইলিশ মাছ কখন ডিম পাড়ে?

উত্তর: ইলিশ মাছ বর্ষাকালে ডিম পাড়ে।

8. পলাশ ফুল কখন ফোটে?

উত্তর: বসন্ত কালে গাছে ফুল ফোটে।

9. এরকম কিছু প্রাকৃতিক ঘটনার কথা লেখ যেগুলি বছরের একটা নির্দিষ্ট সময়ে হয়।

উত্তর: বন্যা ( বর্ষাকালে ) , শিতপ্রবাহ ( শীতকাল ) ,  তাপপ্রবাহ ( গ্রীষ্ম কাল )।

10. আমাদের দেশে বছরের কোন সময়ে বেশি গরম পড়ে?

উত্তর: আমাদের দেশে বৈশাখ জ্যৈষ্ঠ মাসে বেশি গরম পড়ে।

আরও পড় : সপ্তম শ্রেণী চুম্বক [ Magnet ] মক টেস্ট

11. গরম বর্ষা শরত্ শীত ছাড়া আর কোনো ঋতুর কথা কি তোমরা জানো?

উত্তর: হ্যা, শরৎকাল ও হেমন্ত কাল ।

12. বর্ষা কি বছরের নির্দিষ্ট সময়েই আসে?

উত্তর: 

13. তোমার অঞ্চলে শীত স্থায়িত্ব কত দিনের?

উত্তর: আমার অঞ্চলে শীত স্থায়িত্ব  ৩০ থেকে ৪৫ দিনের ।

14. গ্রীষ্ম ঋতুর স্থায়িত্ব স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বা কম হলে কি সমস্যা হতে পারে?

উত্তর: 

15. বর্ষা ঋতুর স্থায়িত্ব স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বা কম হলে কি সমস্যা হতে পারে?

উত্তর: 

16. শীত ঋতুর স্থায়িত্ব স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে কি সমস্যা হতে পারে?

উত্তর: 

পৃথিবীর ঘোমটা

17. গ্রিনহাউস গ্যাস কাকে বলে?

উত্তরঃ বায়ুমণ্ডলের বিভিন্ন গ্যাস যেমন কার্বন-ডাই-অক্সাইড, মিথেন, নাইট্রাস অক্সাইড, ক্লোরোফ্লুরোকার্বন, সালফার-ডাই-অক্সাইড, জলীয়বাষ্প ইত্যাদি পৃথিবীর ছেড়ে দেওয়া তাপশক্তির একটা অংশকে বায়ুমন্ডলে ধরে রেখে পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধি করে এগুলিকে গ্রিন হাউজ গ্যাস বলে।

18. বায়ুমন্ডলে গ্রিন হাউজ গ্যাস না থাকলে কি হত?

অথবা, গ্রিনহাউস গ্যাস গুলির একটি সু-প্রভাব লেখ।

উত্তর: বায়ুমন্ডলে জলীয়বাষ্প কার্বন-ডাই-অক্সাইড প্রভৃতি গ্রিনহাউস গ্যাস না থাকলে পৃথিবীপৃষ্ঠের গড় উষ্ণতা 18°C এর নিচে নেমে যেত তাহলে পৃথিবীতে প্রাণের বিকাশ ঘটতো না।

19. বিশ্ব উষ্ণায়ন কাকে বলে?

উত্তর: গ্রিনহাউস গ্যাস গুলির তাপ শোষণের ফলে পৃথিবীর উষ্ণতা প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই ঘটনাকেই বিশ্ব উষ্ণায়ন বা গ্লোবাল ওয়ার্মিং বলে।

20. মানুষের কার্যকলাপের মাধ্যমে সৃষ্টি হওয়া প্রধান গ্যাস কোনটি?

উত্তরঃ কার্বন ডাই অক্সাইড।

21. প্রধান গ্রীন হাউস গ্যাসের নাম লেখ।

উত্তরঃ কার্বন ডাই-অক্সাইড।

22. গত ১০০ বছরে পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা কত বৃদ্ধি পেয়েছে?

উত্তরঃ গত ১০০ বছরে পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা 1° সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেয়েছে।

23. বিগত শতাব্দীর উষ্ণতম বছর কোনটি?

উত্তরঃ মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার নাসা অনুযায়ী বিগত শতাব্দীর উষ্ণতম বছর হল 2005 ।

24. 1980 থেকে 1988 সালের মধ্যে ভারতে মোট কটি তাপ প্রবাহের ঘটনা ঘটেছে?

উত্তরঃ 18 টি

25. _____ সালে রাজস্থানে বন্যা হয়।

উত্তরঃ 2005

26. ____ সালে উত্তর-পূর্ব ভারতে খরা হয়।

উত্তরঃ 2005

27. পৃথিবীর মিষ্টি জলের বৃহত্তম ভান্ডার কি?

উত্তরঃ হিমবাহ।

28. পৃথিবীর শতকরা কত শতাংশ হিমবাহ উত্তর ও দক্ষিণ মেরুতে অবস্থিত?

উত্তরঃ পৃথিবীর 99% হিমবাহ উত্তর ও দক্ষিণ মেরুতে অবস্থিত।

29. গঙ্গা নদীর উৎস কি?

উত্তরঃ গঙ্গোত্রী হিমবাহ।

30. হিমালয়ে অবস্থিত তিনটি হিমবাহের নাম লেখ।

উত্তরঃ গঙ্গোত্রী, যমুনোত্রী ও জেমু হিমবাহ।

31. পৃথিবীর গড় উষ্ণতা বৃদ্ধি পেলে কি সংকট আসবে?

উত্তরঃ পৃথিবীর গড় উষ্ণতা বৃদ্ধি পেলে হিমবাহ গুলোর বরফ বেশি মাত্রায় গলতে আরম্ভ করবে। এর ফলে সমুদ্রের জলতল বেড়ে গেলে উপকূল অঞ্চলে বন্যার সম্ভাবনা দেখা দেবে। উপকূল অঞ্চলের জীববৈচিত্র্য ধ্বংসের মুখে পড়বে। প্রাণহানি ও আর্থিক ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দেবে। সমুদ্রের জলতল বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে সারা পৃথিবীতে সমুদ্রের উপকূলে বাস করা অসংখ্য মানুষ।

32. 1999 থেকে 2005 সালের মধ্যে সমুদ্রের জলতল প্রতি বছরে গড়ে কত বৃদ্ধি পেয়েছে?

উত্তর: 3 মিলিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে।

33. 2100 সালের মধ্যে সমুদ্রের জলতলের উচ্চতা কত বৃদ্ধি পেতে পারে?

উত্তরঃ ৭০ সেন্টিমিটার।

34. পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি বাঘের আবাস কোন স্থান?

উত্তরঃ সুন্দরবন।

35. হিমবাহ কত শতাংশ সূর্য রশ্মি প্রতিফলিত করে?

উত্তরঃ হিমবাহ 80% সূর্য রশ্মি প্রতিফলিত করে।

36. প্রবাল প্রাচীর কাকে বলে?

উত্তরঃ একসঙ্গে বাস করা অনেক প্রবালের দেহের বাইরের ক্যালসিয়াম কার্বনেট এর বহি কঙ্কাল একটা শক্ত প্রাচীরের মতো গঠন তৈরি করে, একেই প্রবাল প্রাচীর বলে।

37. প্রবাল প্রাচীর পৃথিবীর কত শতাংশ সামুদ্রিক প্রজাতির আশ্রয়স্থল?

উত্তরঃ প্রবাল প্রাচীর 25% সামুদ্রিক প্রজাতির আশ্রয়স্থল।

জীববৈচিত্র্যের সংখ্যার হ্রাস

38. জীববৈচিত্র্য কি?

উত্তরঃ কোন একটা নির্দিষ্ট অঞ্চলের সব ধরনের উদ্ভিদ, প্রাণী আর জীবাণুর বৈচিত্র নিয়ে জীবনের বৈচিত্র যাকে এক কথায় বলা হয় জীববৈচিত্র্য।

39. বায়োডাইভারসিটি হটস্পট কাকে বলে?

উত্তরঃ পৃথিবীতে এরকম বহু অঞ্চল আছে যেখানে খুব বেশি সংখ্যক প্রজাতির জীব পাওয়া যায়। আবার এই সব অঞ্চলে এমন সব প্রজাতির জীবও পাওয়া যায় যা অন্য কোথাও পাওয়া যায় না। এরকম অঞ্চলকে বায়োডাইভারসিটি হটস্পট বা জীববৈচিত্রের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল বলে। যেমন পূর্ব হিমালয়, সুন্দাল্যান্ড ইত্যাদি।

40. ভারতকে মেগাডাইভারসিটি নেশন বলে কেন?

উত্তরঃ ভারতের জীববৈচিত্র্য অন্যান্য জায়গার তুলনায় অনেক বেশি। বিভিন্ন প্রজাতির জীবের পাশাপাশি এমন প্রজাতির জীবও প্রচুর পাওয়া যায় যা অন্য কোথাও পাওয়া যায় না, তাই ভারতকে মেগাডাইভারসিটিনেসান বলে।

41. পৃথিবীতে মোট মেগাডাইভারসিটি নেশন কটি?

উত্তরঃ পৃথিবীতে মোট ১৭ টি মেগাডাইভারসিটি নেশন আছে।

42. পৃথিবীর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ মেগাডাইভারসিটি দেশ কোনটি?

উত্তরঃ ভারত।

43. ভারতবর্ষে মোট কত প্রজাতির বন্যপ্রাণী পাওয়া গেছে?

উত্তরঃ ভারতবর্ষে মোট 91212 প্রজাতির বন্যপ্রাণী পাওয়া গেছে।

44. ভারতবর্ষের মোট ভূখণ্ডের কত শতাংশ অরণ্যে ঢাকা?

উত্তর: 19.7 শতাংশ অরণ্যে ঢাকা।

45. সারা বিশ্বের উদ্ভিদজগতের কত শতাংশ ভারতবর্ষে রয়েছে?

উত্তরঃ সারা বিশ্বের উদ্ভিদ জগতের  শতাংশ ভারতবর্ষে রয়েছে।

46. সারা বিশ্বের প্রাণী জগতের কত শতাংশ ভারতবর্ষে রয়েছে?

উত্তরঃ সারাবিশ্বের প্রাণিজগতের 6.5 শতাংশ ভারতবর্ষে রয়েছে।

47. জীববৈচিত্রের গুরুত্ব লেখ।

উত্তরঃ খাদ্যের উৎস: খাদ্যশস্যের বিচিত্র সম্ভার কৃষিজ উৎপাদন বাড়াতে সাহায্য করে।

পরিবেশের দূষণ রোধ: অনুজীবরা বিভিন্ন বর্জ্য পদার্থকে ভেঙে ফেলে ওইসব পদার্থের ক্ষতিকর প্রভাব দূর করতে সাহায্য করে।

জলবায়ুর স্থিতাবস্থা:  পরিবেশে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়লে তাপমাত্রা বাড়তে পারে একমাত্র উদ্ভিদ আর কিছু অনুজীবনী সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় কার্বন ডাই অক্সাইড শোষণ করে পরিবেশে অক্সিজেন ও কার্বন ডাই অক্সাইড এর ভারসাম্য বজায় রাখতে পারে। 

বৃষ্টিপাত বজায় রাখা : উদ্ভিদের মূল দিয়ে যে জল শোষণ করে তার কিছুটা অংশ বাষ্পভূত করে ফলে বৃষ্টিপাত বজায় রাখতে বনভূমি তথা উদ্ভিদরা এইভাবে সাহায্য করে।

পরিবেশের বিভিন্ন মৌলের ভারসাম্য রক্ষা: মাটিতে উপস্থিত বিভিন্ন অনুজীব অন্যান্য মৃত জীবের দেহ বা বর্জ্য পদার্থগুলোকে মাটিতে মিশিয়ে দেয় ফলে মাটি তার হারানো মৌলগুলিকে আবার ফিরে পায়।

মৃত্তিকা সংরক্ষণ: ঘাস জাতীয় উদ্ভিদরা মাটির গঠন রক্ষা করতে সাহায্য করে।

ছত্রাক ও ব্যাকটেরিয়া মাটিতে উপস্থিত উদ্ভিদের বৃদ্ধি সহায়ক বিভিন্ন উপাদানের পরিমাণ বজায় রাখতে সাহায্য করে।

ঔষধের উৎস : বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ যেমন সিঙ্কোনা গাছ থেকে কুইনাইন সর্পগন্ধা গাছ থেকে রেসারপিন পেনিসিলিয়াম নামক ছত্রাক থেকে পেনিসিলিন ইত্যাদি ছাড়াও আরো অনেক ঔষধ পাওয়া যায়।

48. পৃথিবীর জীববৈচিত্র্য হ্রাসের কারণ লেখ।

উত্তর: পৃথিবীর জীববৈচিত্রের হ্রাসের কারণ : 

হারিয়ে যাচ্ছে বাসস্থান : প্রকৃতি থেকে জীবদের হারিয়ে যাওয়ার একটা বড় কারণ হলো তাদের বাসস্থান ধ্বংস হয়ে যাওয়া । আমাদের ভোগ বিলাসের সামগ্রী তৈরির প্রয়োজনে ও থাকার জায়গা বাড়ানোর জন্য জঙ্গলের গাছ কেটে ফেলা হয় ।

চোরা শিকার: চোরাশিকারীদের লোভ অনেক প্রাণীর অস্তিত্বকে বিপন্ন করে তুলেছে।  পৃথিবীর বেশ কিছু দেশে কিছু কিছু বন্য জন্তুর হাড় চামড়া ইত্যাদি ওষুধ তৈরির কাজে ব্যবহার করা হয়।

পরিবেশের নতুন জীবের আগমন: বাইরে থেকে আসা নতুন প্রাণী অনেক সময় স্থানীয় প্রাণীদের সংখ্যা হ্রাসের কারণ হয় ।তারা অন্য প্রাণীদের খাবার , এমনকি অন্য প্রাণীদের ডিম খেয়ে নিত।

জলবায়ু পরিবর্তন: জলবায়ুর পরিবর্তন পাল্টে দিতে পারে জীবেদের চেনা পরিবেশ। সেই নতুন পরিবেশে মানিয়ে নিতে না পারলে তাদের অস্তিত্ব সংকটাপন্ন হয়ে পড়ে।

পরিবেশ দূষণ: রাসায়নিক পদার্থের অনিয়ন্ত্রিত ব্যবহার অনেক সময় ডেকে আনতে পারে জীবেদের বিনাশ। চাষের জমিতে যথেষ্ট পরিমাণ কীটনাশক ব্যবহারের ফলে হারিয়ে গেছে বেশ কিছু শস্যভূক প্রাণী।

অতিরিক্ত অর্থনৈতিক ব্যবহার: বিশেষ কিছু উদ্ভিদ বা প্রাণীর অর্থকরী গুরুত্ব যদি খুব বেশি হয় তবে অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে ওইসব জীবের অস্তিত্ব বিপন্ন হতে পারে।

49. সাইবেরিয়ার বাঘের অস্তিত্ব সংকটের অন্যতম কারণ কি?

উত্তরঃ সাইবেরিয়ার বাঘের অস্তিত্ব সংকটের অন্যতম কারণ হলো বাসস্থান ধ্বংস হয়ে যাওয়া।

50. চোরাশিকারের কারন কি?

উত্তরঃ কিছু বন্য জন্তুর হাড়, চামড়া ইত্যাদি ঔষধ তৈরির কাজে ব্যবহার করা হয় বলে এদের অনেক বাজারমূল্য রয়েছে। এছাড়াও দাঁত, চামড়া বা শিং এসবের লোভেও বিভিন্ন জায়গায় চোরাশিকার হয়।

51. মৌরলা, পুটি, খলশে ইত্যাদি মাছের অস্তিত্ব বিপর্যের কারণ কি?

উত্তরঃ আফ্রিকা থেকে তেলাপিয়া আর বিশাল মাগুর জাতের মাছ এনে ছেড়ে দেওয়ার ফলে এই সমস্ত বিদেশি মাছ মৌরলা, পুটির মত ছোট মাছ খেয়ে ফেলে।

52. অস্ট্রেলিয়ার কোয়ালা ভাল্লুকের প্রধান খাবার কি?

উত্তরঃ অস্ট্রেলিয়ার কুয়ালা ভাল্লুকের প্রধান খাবার হল ইউক্যালিপটাস গাছের পাতা।

53. মেরু ভাল্লুক ও পেঙ্গুইনদের জীবন আজ বিপন্ন কেন?

উত্তরঃ জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলে ঘটছে বিশ্ব উষ্ণায়ন। এর ফলে মেরু অঞ্চলের বড় দ্রুত গলে যাচ্ছে যে তার ফলে মেরু ভাল্লুক ও পেঙ্গুইনদের অস্তিত্ব আজ বিপন্ন।

54. গঙ্গার শুশুক কমে যাচ্ছে কেন?

উত্তরঃ শিল্প আর কৃষি ক্ষেত্রে ব্যবহার হওয়া বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ গঙ্গায় এসে মেশে।  ফলে গঙ্গায় মাছের সংখ্যা কমে যাওয়ার সাথে সাথে বিপন্ন হচ্ছে গঙ্গার শুশুক বা ডলফিন।

55. কোন প্রাণী থেকে মৃগনাভি পাওয়া যায় ? এর ব্যবহার কি?

উত্তরঃ হিমালয়ের কস্তুরী মৃগ থেকে মৃগনাভি পাওয়া যায়।

▣ এই মৃগনাভি থেকে তৈরি হয় নানান সুগন্ধি দ্রব্য।

56. গত ৫০০ বছরে মোট কতটি প্রজাতি পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে?

উত্তরঃ গত 500 বছরের মোট 784 টি প্রজাতি পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।

57. গত 20 বছরে পৃথিবী থেকে কতটি প্রজাতি নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে?

উত্তরঃ গত 20 বছরে মোট প্রায় 27 টি প্রজাতি নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।

58. বিদ্যালয়ে পাওয়া যায় এমন একটি বর্জ্য পদার্থের নাম লেখ।

উত্তর: কাগজের টুকরো, চকের টুকরো, নষ্ট হওয়া কলম।

59. হাসপাতালে পাওয়া যায় এমন বর্জ্য পদার্থের নাম লেখ।

উত্তরঃ ব্যবহার হওয়ার সিরিঞ্জ, ওষুধের বোতল, তুলো ইত্যাদি।

60. অ্যাসবেস্টসের কারখানায় কাজ করলে কোন অঙ্গের সমস্যা দেখা দিতে পারে?

উত্তরঃ ফুসফুসের সমস্যা।

61. পরিবেশ রক্ষায় গাছের ভূমিকা লেখ

উত্তরঃ 

  • উদ্ভিদ প্রবল ঝড়ের হাত থেকে আমাদেরকে। 
  • উদ্ভিদ পরিবেশে অক্সিজেন ও কার্বন ডাই-অক্সাইডের ভারসাম্য বজায় রাখে।
  • উদ্ভিদ সবুজি হওয়ায় খাদ্য উৎপাদন করতে পারে এবং আমাদের পৃথিবীর খাদ্যের এক বিশাল উৎস হলো উদ্ভিদ।
  • জঙ্গল ও বন পরিবেশের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।
  • উচ্চ লাউড স্পিকার ও বিভিন্ন উচ্চ ডেসিবেল এর শব্দ উদ্ভিদ শোষণ করে ফলে শব্দ দূষণের হাত থেকে আমরা বাঁচতে পারি।
  • অনেক পশু পাখি ও প্রাণীদের বাসস্থান হল উদ্ভিদ ও বন ।
  • অনেক উদ্ভিদ মাটির ক্ষয় রোধ করে।

আরও পড় : অধ্যায় আলো : ক্লাস সেভেন 100% কমন প্রশ্ন উত্তর [Light]

আজকের এই পর্বে আলোচ্য বিষয় গুলো এক নজরে দেখে নিন যার উত্তর উপরের লেখায় পাবে : 

  • ইলিশ মাছ ডিম পাড়ে কখন?
  • আমাদের দেশে বছরের কোন সময় বেশি গরম পড়ে?
  • বায়ুদূষণ সৃষ্টিকরি যানবাহনের ধোঁয়ায় উপস্থিত গ্যাসটি হল ____ ।
  • গ্রিনহাউস গ্যাসের মধ্যে থাকে না এমন গ্যাস হল-
  • একটি গ্রিনহাউস গ্যাস হল ____ ।
  • কোনটি বিশ্ব উষ্ণায়নের জন্য দায়ী?
  • কোনটি বিশ্ব উষ্ণায়নের জন্য দায়ী নয়-
  • 1970 থেকে 2004 সালের মধ্যেপ্রতি বছর পরিবেশে CO2 গ্যাসের মেশার হার বেড়ে গেছে ___ ।
  • গত 100 বছরে পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা বেড়েছে ___।
  • NASA র গবেষণা অনুযায়ী গত এক শতাব্দীর উষ্ণতম বছর ____ ।
  • পরিবেশের সংকট,উদ্ভিদ ও পরিবেশের সংরক্ষণ Solutions
  • _________ সালে রাজস্থানে বন্যা হয়।
  • উত্তরাখণ্ডে মেঘভাঙা বৃষ্টি থেকে বিধ্বংসী বন‍্যা হয়েছিল ____ ।
  • প্রায় 99% হিমবাহের অবস্থান ____ ।
  • গঙ্গা নদীর উৎস ____ ।
  • ব্রহ্মপুত্র নদীর উৎস ____ ।
  • হিমালয় এশিয়ার_________ টি বড়ো নদীকে পুষ্ট করে ____ ।
  • হিমালয়ের বিভিন্ন হিমবাহ থেকে যতসংখ্যক লোকের জলের বন্দোবস্ত হয়, তা হল প্রায় ___ ।
  • পরিবেশের তাপমাত্রা খুব বেশি বাড়ার ফলে কি হয়?
  • আবহাওয়া বলতে কী বোঝ?
  • পরিবেশের সংকট,উদ্ভিদ ও পরিবেশের সংরক্ষণ Solutions
  • আবহাওয়া এবং জলবায়ুর মধ্যে পার্থক্য লেখো।
  • জলবায়ু বলতে কী বোঝ?
  • ধোয়ার মধ্যে কী কী উপাদান থাকে?
  • পৃথিবীর ঘোমটা বলতে তুমি কি বোঝ?
  • বায়ুমন্ডলীয় চাদর বলতে কী বোঝ? এর গুরুত্ব কী?
  • পৃথিবীতে প্রাণের স্পন্দন জাগিয়ে রাখার ক্ষেত্রে কোন কোন গ্যাসীয় পদার্থ উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে? ওইগুলি না থাকলে পৃথিবী পৃষ্ঠের গড় উষ্ণতার কী পরিবর্তন ঘটত ও কি অসুবিধা হত?
  • বিশ্ব উষ্ণায়ন বা গ্লোবাল ওয়ার্মিং কী?
  • বিশ্ব উষ্ণায়ন কাকে বলে?
  • বিশ্ব উষ্ণায়নের জন্য দায়ীগ্যাসীয় পদার্থগুলির নাম লেখো।
  • পরিবেশের এমন দুটি প্রাকৃতিক গ্যাসীয় পদার্থের নাম লেখো যাদের বিশ্ব উষ্ণায়নে ভূমিকা আছে।
  • পরিবেশের সংকট,উদ্ভিদ ও পরিবেশের সংরক্ষণ Solutions
  • বিশ্ব উষ্ণায়নের অন্যতম কারণগুলি কী কী?
  • পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে কার্বন ডাইঅক্সাইড বৃদ্ধি সংক্রান্ত তিনটি প্রভাব উল্লেখ করো।
  • বিশ্ব উষ্ণায়ন বা গ্লোবাল ওয়ার্মিং এর ফল কী?
  • পৃথিবীর জলবায়ুর উপরে বিশ্ব উষ্ণায়নের ক্ষতিকর প্রভাব সংক্ষেপে আলোচনা করো।
  • গ্লোবাল ওয়ার্মিং বা বিশ্ব উষ্ণায়ন নিয়ন্ত্রণের উপায় কী?
  • বিশ্ব উষ্ণায়ন বা গ্লোবাল ওয়ার্মিং- এর সাপেক্ষে তিনটি প্রাকৃতিক ঘটনা উল্লেখ করো।
  • হিমালয় পর্বতমালায় অবস্থিত কয়েকটি হিমবাহের নাম লেখো।
  • সমুদ্রের জলতল বেড়ে গেলে কী কী ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দেবে?
  • সমুদ্রের জলতল বেড়ে গেলে ভারত ও বাংলাদেশের কোন অঞ্চল বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে?কত মানুষ বিপদের সম্মুখীন হবে?
  • উষ্ণায়নের ফলে হিমবাহ হলে গেলে কী কী সমস্যা দেখা দিতে পারে?
  • হিমবাহ সম্পূর্ণ গলে যাওয়ার জন্য কে দায়ী?
  • প্রবালরা নিজেদের দেহের বাইরে কী দিয়ে বহিঃকঙ্কালের তৈরি করে? প্রবালের বহিঃকঙ্কালের কাজ কী
  • মৃত প্রবালের বহিঃকঙ্কালের গুরুত্ব কী?
  • সমুদ্রের তলদেশে প্রবাল প্রাচীর কীভাবে সামুদ্রিক জীববৈচিত্র্যকে রক্ষা করে এবং শতকরা কত ভাগের আশ্রয়স্থল?
  • প্রবাল প্রাচীর কী?
  • জীববৈচিত্রের নিরিখে প্রবাল প্রাচীরের গুরুত্ব অপরিসীম কেন?
  • প্রবাল দ্বীপ কিভাবে তৈরি হয়?
  • জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবগুলি লেখো।
  • কোনো অঞ্চলের আবহাওয়া ও জলবায়ু নিচের যে বিষয়টির ওপর নির্ভরশীল নয় তা হল-
  • শূন্যস্থান পূরণ করো: সালোকসংশ্লেষের এর ফলে ___________ গ্যাস উৎপন্ন হয়।
[ এইরকম আরো প্রশ্ন-উত্তর কিংবা মক টেস্ট চাইলে তোমরা অবশ্যই আমাদের কাছে লিখে পাঠাও। আমাদের হোমপেজ থেকে তোমরা সরাসরি আমাদের লিখে পাঠাতে পারো কিংবা আমাদের কন্টাক্ট আজ পেজেও তোমরা আমাদেরকে লিখতে পারো ]

About the Author

Teacher , Blogger, Edu-Video Creator, Web & Android App Developer, Work under Social Audit WB Govt.

1 comment

  1. প্রশ্নের সমাধান
Please Comment , Your Comment is Very Important to Us.

All Chapter Contents

Cookie Consent
We serve cookies on this site to analyze traffic, remember your preferences, and optimize your experience.
Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.
AdBlock Detected!
We have detected that you are using adblocking plugin in your browser.
The revenue we earn by the advertisements is used to manage this website, we request you to whitelist our website in your adblocking plugin.
Site is Blocked
Sorry! This site is not available in your country.