Join Our Telegram Group For Free ABVRP 24*7 Join

প্রাচীন ভারতের ইতিহাসের উপাদান | প্রাচীন ঐতিহাসিক উপাদান | দেশীয় সাহিত্য ও গ্রন্থসমূহ | বৈদেশিক পর্যটক ও তাদের বিবরনী | প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান | লেখ | লিপি ও মুদ্রা

প্রাচীন ভারতের ইতিহাসের উপাদান | প্রাচীন ঐতিহাসিক উপাদান | দেশীয় সাহিত্য ও গ্রন্থসমূহ | বৈদেশিক পর্যটক ও তাদের বিবরনী | প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান | লেখ

প্রাচীন ভারতের ইতিহাসের উপাদান নিয়ে আমরা আজকের পর্বে আমরা রেখেছি ২০ টির বেশী MCQ প্রশ্ন উত্তর এবং ১১০ টি ছোটো প্রশ্ন ও উত্তর । এই প্রশ্নগুলি পড়লেই এই অধ্যায়ে তুমি খুবই সাবলীল হয়ে যাবে । ক্লাস ছাড়াও চাকরির পরিক্ষাতেও তুমি অনেক এগিয়ে যাবে। 

প্রাচীন ভারতের ইতিহাসের উপাদান | প্রাচীন ঐতিহাসিক উপাদান

1. আর্যভট্ট এবং বরাহমিহির কোন যুগের মনীষী ছিলেন?

A. মৌর্য যুগ
B. গুপ্ত যুগ
C. পাল যুগ
D. দিল্লির সুলতানি যুগ

B. গুপ্ত যুগ

2. বৈদিক সাহিত্য রচনার সময়কাল-

A. 1000 খ্রিস্টপূর্বাব্দ
B. 3000 - 2500 খ্রিস্টপূর্বাব্দ
C. 1500 - 500 খ্রীষ্টপূর্বাব্দ
D. 1200 - 1000 খ্রিস্টপূর্বাব্দ

C. 1500 - 500 খ্রীষ্টপূর্বাব্দ

3. কবি জয়দেবের গীতগোবিন্দ রচিত কোন ভাষায়?

A. বাংলা
B. সংস্কৃত
C. মৈথিলী
D. অপভ্রংশ

B. সংস্কৃত

4. নিম্নোক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে কে মিতাক্ষরা লিখেছেন?

A. ন্যায়চন্দ্র
B. গঙ্গাধর
C. বিলহন
D. বিজ্ঞানেশ্বর

D. বিজ্ঞানেশ্বর

5. রাজতরঙ্গিনী গ্রন্থের রচয়িতা কে?

A. কলহন
B. বানভট্ট
C. হেমচন্দ্র
D. বিলহন

A. কলহন

6. হর্ষচরিত গ্রন্থটির রচয়িতা কে?

A. বিলহন
B. হেমচন্দ্র
C. বানভট্ট
D. গঙ্গাধর

C. বানভট্ট

7. ফো কুয়ো কি গ্রন্থটি রচনা করেন-

A. ইৎ সিং
B. হিউয়েন সাং
C. ফা হিয়েন
D. মেগাস্থিনিস

C. ফা হিয়েন

8. নিচের কোন নাটকের চারুদত্ত ও বসন্তসেনা নামক চরিত্র দুটি উল্লেখ পাওয়া যায়?

A. মালবিকাগ্নিমিত্রম
B. স্বপ্নবাসবদত্তা
C. মৃচ্ছকটিকম
D. মালতীমাধব

C. মৃচ্ছকটিকম

9. কম্ব রামায়ণ কোন ভাষায় রচিত?

A. সংস্কৃত
B. তামিল
C. তেলেগু
D. মালয়ালাম

B. তামিল

10. জাতকের গল্প গুলি কোন ভাষায় রচিত?

A. সংস্কৃত
B. পালি
C. প্রাকৃত
D. বৈদিক

B. পালি

11. সন্ধ্যাকর নন্দী কোন রাজবংশের সভাকবি ছিলেন?

A. প্রতিহার
B. রাষ্ট্রকূট
C. সেন
D. পাল

D. পাল

12. শ্রীকৃষ্ণবিজয়কাব্য গ্রন্থের রচয়িতা কে?

A. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
B. মালাধর বসু
C. বিদ্যাপতি
D. জয়দেব

B. মালাধর বসু

13. ফা হিয়েন এর ভারত আগমন এর সময় গুপ্ত সম্রাট কে ছিলেন?

A. স্কন্দ গুপ্ত
B. দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্ত
C. সমুদ্র গুপ্ত
D. প্রথম কুমার গুপ্ত

B. দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্ত

14. গীতগোবিন্দ এর রচয়িতা জয়দেব বাংলার কোন রাজার সভাকবি ছিলেন?

A. ধর্মপাল
B. দেবপাল
C. বল্লাল সেন
D. লক্ষণ সেন

D. লক্ষণ সেন

15. বৌদ্ধ প্রথা ও ইতিহাস অনুযায়ী চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য ছিলেন মৌরিয় নামক

A. শূদ্র
B. বৈশ্য
C. ব্রাহ্মণ
D. ক্ষত্রিয়

A. শূদ্র

16. ধোয়ী কোন রাজার সভাকবি ছিলেন?

A. লক্ষণ সেন
B. প্রথম দেবপাল
C. শশাঙ্ক
D. বিজয় সেন

A. লক্ষণ সেন

17. কলহনের রাজতরঙ্গিনী কোন অঞ্চলের ঐতিহাসিক বিবরণ?

A. বাংলা
B. মালব
C. কাশ্মীর
D. জৌনপুর

C. কাশ্মীর

18. নিচের কোনটিতে বৌদ্ধ ধর্মতত্ত্ব সম্বন্ধে উল্লেখ রয়েছে?

A. জাতক
B. শতপথ
C. উপনিষদ
D. ধম্মপদ

D. ধম্মপদ

19. বিশিষ্ট ব্যাকরণ বিদ পতঞ্জলি কার সমসাময়িক ছিলেন?

A. অগ্নিমিত্র শুঙ্গ
B. পুষ্যমিত্র শুঙ্গ
C. বাসুদেব কান্ব
D. গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী

B. পুষ্যমিত্র শুঙ্গ

20. মৌর্য সাম্রাজ্যের পাটলিপুত্র নগর এর পৌর শাসন সম্পর্কে জানার সর্বাপেক্ষা মূল্যবান উৎস হল-

A. ইন্ডিকা
B. অর্থশাস্ত্র
C. মুদ্রারাক্ষস
D. অশোকের লেখমালা

A. ইন্ডিকা

21. ঋতুসংহার এর রচয়িতা কে?

A. ভবভূতি
B. জয়দেব
C. বিদ্যাপতি
D. কালিদাস

D. কালিদাস

ছোট প্রশ্ন- উত্তর

১. ইতিহাস রচনার উপাদান গুলি কি কি?

উত্তর: ইতিহাস রচনার উপাদান গুলি হল-

সাহিত্যিক উপাদান - দেশীয় সাহিত্য ও বিদেশি সাহিত্য।

প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান - লেখ বা লিপি

স্থাপত্য ভাস্কর্য ও প্রাচীন ধ্বংসাবশেষ।

২. পৃথিবীর প্রাচীনতম ধর্ম গ্রন্থ কোনটি?

উত্তর: পৃথিবীর প্রাচীনতম ধর্ম গ্রন্থ হলো ঋগ্বেদ।

৩. সমগ্র বৈদিক সাহিত্য কে কয়টি ভাগে ভাগ করা হয় ও কি কি?

উত্তর: সমগ্র বৈদিক সাহিত্য কে চারটি ভাগে ভাগ করা হয় যথা :- ঋক , সাম , যজুঃ ও অথর্ব।

৪. মনুস্মৃতি হল একপ্রকার- ধর্ম শাস্ত্র / মহাকাব্য / পুরান / অর্থশাস্ত্র।

উত্তর: মনুস্মৃতি হল একপ্রকার ধর্ম শাস্ত্র।

৫. রামায়ণের প্রথম বাংলায় অনুবাদ করেন কে?

উত্তর: রামায়ণের প্রথম বাংলায় অনুবাদ করেন কৃত্তিবাস ওঝা।

৬. মহাভারতের প্রথম বাংলায় অনুবাদ কে করেন?

উত্তর: কাশীরাম দাস প্রথম বাংলায় মহাভারত অনুবাদ করেন।

৭. অর্থশাস্ত্র বইটির লেখক কে?

উত্তর: অর্থশাস্ত্র বইটির লেখক কৌটিল্য।

৮. বৌদ্ধদের ধর্মগ্রন্থের নাম কি?

উত্তর: বৌদ্ধদের ধর্মগ্রন্থ হল ত্রিপিটক।

৯. বৌদ্ধদের ধর্মগ্রন্থ ত্রিপিটক কোন ভাষায় লিখিত?

উত্তর: বৌদ্ধদের ধর্মগ্রন্থ ত্রিপিটক পালি ভাষায় লিখিত।

১০. জাতক নিম্নের কোন গ্রন্থের অন্তর্গত একটি গ্রন্থ?

ত্রিপিটক / অর্থশাস্ত্র / পুরান / কোনোটিই নয়

উত্তর: জাতক ত্রিপিটক এর অন্তর্গত গ্রন্থ।

১১. কোন গ্রন্থ থেকে গৌতম বুদ্ধের পূর্বজন্মের কাহিনী জানা যায়?

উত্তর: জাতক গ্রন্থ থেকে গৌতম বুদ্ধের পূর্বজন্মের কাহিনী সম্পর্কে জানা যায়।

১২. কোন গ্রন্থ থেকে প্রথম জনপদের ধারণা পাওয়া যায়?

উত্তর: অঙ্গুত্তরনিকায় গ্রন্থ থেকে প্রথম জনপদের ধারণা পাওয়া যায়।

১৩. জৈনদের প্রধান ধর্মগ্রন্থ কোনটি?

উত্তর: জৈনদের প্রধান ধর্মগ্রন্থ হলো দ্বাদশ অঙ্গ।

১৪. দ্বাদশ অঙ্গ কোন ভাষায় রচিত?

উত্তর: দ্বাদশ অঙ্গ প্রাকৃত ভাষায় রচিত।

১৫. নিচের কোন জৈন গ্রন্থ টি থেকে চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য সম্পর্কে সবথেকে বেশি তথ্য জানা যায়?

দ্বাদশ অঙ্গ/ ত্রিপিটক / জৈন কল্পসূত্র / জৈন পরিশিষ্ট পার্বণ

উত্তর: জৈন পরিশিষ্ট পার্বণ নামক গ্রন্থ থেকে চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য সম্পর্কে জানা যায়।

১৬. জৈন কল্পসূত্র বইটি কার লেখা? এই বই থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: জৈনকল্পসূত্র বইটি ভদ্র বাহুর লেখা।

▣ এই বই থেকে মহাবীর সম্পর্কে জানা যায়।

১৭. নিচের কোনটি আলাদা?

হর্ষচরিত, জীবনচরিত, রামচরিত, গৌড় বিজয়

উত্তর: জীবনচরিত।

কারন: বাকি তিনটি জীবনচরিত এর অন্তর্গত।

১৮. হর্ষচরিত বইটি কার লেখা? এই বই থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: হর্ষচরিত বইটি বানভট্টের লেখা।

▣ হর্ষচরিত বই থেকে হর্ষবর্ধন সম্পর্কে জানা যায়।

১৯. বুদ্ধচরিত বইটি কার লেখা? এই বই থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: বুদ্ধচরিত বইটি অশ্ব ঘোষের লেখা।

▣ এই বইটি থেকে বুদ্ধদেব সম্পর্কে জানা যায়।

২০. রামচরিত বইটি কার লেখা? এই বইটি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: রাম চরিত বইটি সন্ধ্যাকর নন্দীর লেখা।

▣ এই বইটি থেকে রামপাল সম্পর্কে জানা যায়।

২১. বিক্রমাংকদেবচরিত বইটি কার লেখা? এই বইটি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: বিক্রমাংকদেবচরিত বইটি বিলহন এর লেখা।

▣ এই বইটি থেকে ষষ্ঠ বিক্রমাদিত্য সম্পর্কে জানা যায়।

২২. গৌড়বাহ বইটি কার লেখা?

উত্তর: গৌড়বাহ বইটি বাকপতিরাজ এর লেখা।

২৩. গৌড় বিজয় বইটি কার লেখা?

উত্তর: গৌড় বিজয় বইটি যশোবর্মন এর লেখা।

২৪. কুমারপালচরিত বইটি কার লেখা?

উত্তর: কুমারপালচরিত বইটি জয়সিংহের লেখা।

২৫. নবসাহশাঙ্কচরিত বইটি কার লেখা?

উত্তর: নবসাহশাঙ্কচরিত বইটি পদ্মগুপ্তের লেখা।

২৬. পৃথ্বীরাজ চরিত বইটি কার লেখা?

উত্তর: পৃথ্বীরাজ চরিত বইটি চাঁদ বরদৈ এর লেখা।

২৭. কীর্তিকৌমুদী বইটি কার লেখা?

উত্তর: কীর্তিকৌমুদী বইটি সোমেশ্বর এর লেখা।

২৮. প্রবন্ধ কোষ বইটি কার লেখা? এই বইটি থেকে কোন রাজ্যের ইতিহাস জানা যায়?

উত্তর: প্রবন্ধ ঘোষ বইটি রাজশেখর এর লেখা।

▣ এই বইটি থেকে গুজরাট এর বিষয়ে জানা যায়।

২৯. প্রবন্ধচিন্তামণি বইটি কার লেখা?

উত্তর: প্রবন্ধচিন্তামণি বইটি মেরুতুঙ্গের লেখা।

৩০. হামিররাসো বইটি কার লেখা?

উত্তর: হামিররাসো বইটি সরঙাধরের লেখা।

৩১. বসন্তবিলাস বইটি কার লেখা?

উত্তর: বসন্তবিলাস বইটি বাল চন্দ্রের লেখা।

৩২. চাচনামা বইটি কার লেখা? এই বইটি থেকে কি জানা যায়?

উত্তর: চাচনামা বইটি ইসমাইল এর লেখা।

▣ চাচনামা নামক বইটি থেকে আরবদের সিন্ধু বিজয় সম্পর্কে জানা যায়।

৩৩. চাচনামা গ্রন্থের ফারসি অনুবাদ কে করেন?

উত্তর: চাচনামা গ্রন্থের ফারসি অনুবাদ করেন আবু বকর।

৩8. বিভিন্ন প্রাচীন গ্রন্থ ও তাদের রচয়িতার নাম একটি ছকের মাধ্যমে দেখাও।

Table

৩৫. প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান গুলি কে কয় ভাগে ভাগ করা হয় ও কি কি?

উত্তর: প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান গুলি কে তিন ভাগে ভাগ করা যায় যথা: (i) লেখ বা লিপি (ii) মুদ্রা এবং (iii) স্থাপত্য ভাস্কর্য ও প্রাচীন ধ্বংসাবশেষ।

৩৬. মৌর্য যুগের শাসকরা তাদের লেখ প্রচারে কোন ভাষা ব্যবহার করতেন?

উত্তর: ব্রাম্ভী ও খরোষ্ঠী।

৩৭. সম্রাট অশোকের লেখ - এ কোন লিপির ব্যবহার আছে?

উত্তর: সম্রাট অশোকের লেখে ব্রাম্ভী ও খরোষ্ঠী লিপির ব্যবহার আছে।

৩৮. খরোষ্ঠী লিপি কোন দিক থেকে কোন দিকে লেখা হতো?

উত্তর: খরোষ্ঠী লিপি ডানদিক থেকে বাঁদিকে লেখা হতো।

৩৯. ব্রাহ্মী লিপি কোন দিক থেকে কোন দিকে লেখা হতো।

উত্তর: ব্রাহ্মী লিপি বাঁ দিক থেকে ডান দিকে লেখা হতো।

৪০. প্রাচীনতম লিপি কি?

উত্তর: ভারতের প্রাচীনতম লিপি হল সোহগোর লিপি।

৪১. কে অশোকের শিলালিপির পাঠোদ্ধার করেন?

উত্তর: অশোকের শিলালিপির পাঠোদ্ধার করেন জেমস প্রিন্সেপ।

৪২. লিপির পাঠোদ্ধার বিদ্যাকে কি বলা হয়?

উত্তর: লিপির পাঠোদ্ধার বিদ্যাকে এপিগ্রাফি বলা হয়।

৪৩. লিপির বিষয়বস্তু অধ্যায়ন কে কি বলা হয়?

উত্তর: বিষয়বস্তু অধ্যায়ন কে প্যালিওগ্রাফি বলা হয়।

৪৪. এলাহাবাদ প্রশস্তি কার লেখা? এই লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: এলাহাবাদ প্রশস্তি সমুদ্রগুপ্তের সভাকবি হরিসেনের লেখা।

▣ এই লিপি থেকে সমুদ্র গুপ্তের কৃতিত্ব সম্পর্কে জানা যায়।

৪৫. নাসিক প্রশস্তি কার লেখা? এই লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা?

উত্তর: নাসিক প্রশস্তি গৌতমি বলশ্রীর লেখা।

▣ এই লিপি থেকে গৌতমীপুত্র সাতকর্ণীর সম্পর্কে জানা যায়।

৪৬. জুনাগর শিলালিপি কার লেখা? এই লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: জুনাগড় শিলালিপি রুদ্রদামন এর লেখা।

▣ এই লিপি থেকে রুদ্রদামন এর সম্পর্কে জানা যায়।

৪৭. আইহোল প্রশস্তি কার লেখা? এই লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: আইহোল প্রশস্তি রবিকীর্তির লেখা।

▣ এই লিপি থেকে চালুক্য বংশের শ্রেষ্ঠ সম্রাট দ্বিতীয় পুলকেশীর কৃতিত্ব সম্পর্কে জানা যায়।

৪৮. হাতিগুম্ফা শিলালিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: হাতিগুম্ফা শিলালিপি থেকে কলিঙ্গরাজ খারবেল এর কৃতিত্ব সম্পর্কে জানা যায়।

৪৯. কলিঙ্গ লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: কলিঙ্গ লিপি থেকে সম্রাট অশোকের সম্পর্কে জানা যায়।

৫০. সম্পট লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: সম্পট লিপি থেকে কনিষ্কের সম্পর্কে জানা যায়।

৫১. এরাণ লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: এরাণ লিপি থেকে দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের সম্পর্কে জানা যায়।

৫২. তাঞ্জোর লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: তাঞ্জোর লিপি থেকে প্রথম রাজেন্দ্র চোল সম্পর্কে জানা যায়।

৫৩. তিরুমালাই লিপি কার লেখা? লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: তিরুমালাই লিপির বিরসেনের লেখা।

▣ এই লিপি থেকে প্রথম রাজেন্দ্র চোল সম্পর্কে জানা যায়।

৫৪. খালিমপুর শিলালিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: খালিমপুর বা তাম্রশাসন শিলালিপি থেকে ধর্মপাল সম্পর্কে জানা যায়।

৫৬. ভিতারি শিলালিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: ভিতারি শিলালিপি থেকে স্কন্দগুপ্ত সম্পর্কে জানা যায়।

৫৭. গঞ্জাম লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: গঞ্জাম লিপি থেকে শশাঙ্ক সম্পর্কে জানা যায়।

৫৮. নানাঘাট শিলালিপি কে রচনা করেছেন? এই লিপি থেকে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: রানাঘাট লিপি নাগানিকা রচনা করেছেন।

▣ এই লিপি থেকে প্রথম সাতকর্ণী সম্পর্কে জানা যায়।

৫৯. মান্দাসোর লিপি কে কার সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: মান্দাসোর লিপি থেকে যশোধর্মন সম্পর্কে জানা যায়।

৬০. কোন রাজার আমলে ভারতে প্রথম স্বর্ণমুদ্রার প্রচলন শুরু হয়?

উত্তর: কুষাণ রাজা বিম কদফিসেসের এর আমলে ভারতের প্রথম স্বর্ণ মুদ্রা প্রচলন শুরু হয়।

৬১. সাতবাহনদের মুদ্রা কি নামে পরিচিত ছিল?

উত্তর: সাতবাহন দের মুদ্রা পোতিন নামে পরিচিত ছিল।

৬২. বৈদিক যুগে প্রচলিত দুটি মুদ্রার নাম লেখ।

উত্তর: নিষ্ক ও মনা হলো বৈদিক যুগে প্রচলিত স্বর্ণমুদ্রা।

৬৩. প্রাচীন দক্ষিণ ভারতে প্রচলিত দুটি স্বর্ণ ও রৌপ্য মুদ্রার নাম লেখ।

উত্তর: দক্ষিণ ভারতে প্রচলিত দুটি স্বর্ণ ও রৌপ্য মুদ্রা হলো কার্শপান ও কাহপান ।

৬৪. বুদ্ধ গ্রন্থে উল্লেখিত ব্রোঞ্জ ও তাম্রমুদ্রার নাম লেখ।

উত্তর: বুদ্ধ গ্রন্থে উল্লেখিত ব্রোঞ্জ ও তাম্রমুদ্রা হলো পদ।

৬৫. শতমান কোন যুগের মুদ্রা?

উত্তর: শতমান পরবর্তী বৈদিক যুগের মুদ্রা।

৬৬. নিচের কোনটি 32 রতির রৌপ্য মুদ্রা- 

নিস্ক / মনা / শতমান / পুরাণ।

উত্তর: পুরাণ বা ধারণ হলো 32 রতির রৌপ্য মুদ্রা।

৬৭. প্রাক বৈদিক যুগের প্রাচীনতম ভারতীয় বন্দর কোনটি?

উত্তর: গুজরাটের লোথাল।

৬৮. গ্রীক দূত মেগাস্থিনিস কার আমলে ভারতবর্ষে আসেন?

উত্তর: গ্রীক দূত মেগাস্থিনিস চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের রাজত্বকালে ভারতে আসেন।

৬৯. পেরিপ্লাস অফ দি এরিথ্রিয়ান সি বইটি থেকে ভারতের সাথে কোন দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্কের কথা জানা যায়?

উত্তর: পেরিপ্লাস অফ দি এরিথ্রিয়ান সি বই থেকে ভারতের সাথে রোমের বাণিজ্যিক সম্পর্কের কথা জানা যায়।

৭০. ফা-হিয়েন কার রাজত্বকালে ভারতে আসেন? তার লেখা গ্রন্থটির নাম কি?

উত্তর: ফা-হিয়েন দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের শাসনকালে ভারতে আসেন।

▣ ফা-হিয়েনের লেখা গ্রন্থটির নাম ফো- কুয়ো - কিং।

৭১. হিউ এন সাং এর রচিত গ্রন্থ সি ইউ কি এর অর্থ কি?

উত্তর: বৌদ্ধ রাজ্য সমূহের বিবরণ।

৭২. ভারতের প্রথম সাংস্কৃত অভিধান এর নাম কি? এর লেখক কে?

উত্তর: অমর সিংহ রচিত অমরকোষ হলো প্রথম সংস্কৃত অভিধান।

৭৩. মহাভাষ্য বইটির লেখক কে?

উত্তর: মহাভাষ্য বইটির লেখক পতঞ্জলি।

৭৪. 'দেবানাং প্রিয় প্রিয়দশি' - নামে সম্রাট অশোককে কোন লিপিতে অভিহিত করা হয়েছে?

উত্তর: হায়দ্রাবাদের মাস্তিতে প্রাপ্ত লিপিতে ।

৭৫. স্কন্দ গুপ্তের কৃতিত্ব কোন লিপিতে বর্ণিত হয়েছে?

উত্তর: ভিতারি স্তম্ভ লিপিতে স্কন্দগুপ্তের কৃতিত্ব বর্ণিত হয়েছে।

৭৬. বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতিতে প্রাচীন মুদ্রা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পদ্ধতিকে কি বলা হয়?

উত্তর: নিউমিসমেটিক্স বলা হয়।

৭৭. ভারতের কোথায় প্রথম মুদ্রার প্রচলন হয় ?

উত্তর: বিহার ও পূর্ব উত্তর প্রদেশে।

***"

৭৮. ঋগবেদের কোন অংশে পরবর্তী বৈদিক যুগে রচিত হয় বলে মনে করা হয়?

উত্তর: দশম মন্ডল

৭৯. ঋগ্বেদের মোট কতগুলি স্তোত্র বা মন্ত্র আছে? 

উত্তর: ঋগ্বেদের মোট 10283 স্তোত্র বা মন্ত্র আছে।

৮০. সত্যমেব জয়তে কথাটি কোন গ্রন্থ থেকে গৃহীত হয়েছে?

উত্তর: সত্যমেব জয়তে কথাটি মুণ্ডক উপনিষদ থেকে গৃহীত হয়েছে।

৮১. বেদ পাঠ করার নিয়ম সংবলিত সাহিত্য কি নামে পরিচিত?

উত্তর: বেদ পাঠ করার নিয়ম সংবলিত সাহিত্য বেদান্ত নামে পরিচিত।

৮২. ত্রিপিটকের পিটক কথাটির অর্থ কি?

উত্তর: ত্রিপিটকের পিটক কথাটির অর্থ হল ঝুড়ি।

৮৩. ভারতের চতুর্বর্ণ প্রথার উল্লেখ পাওয়া যায় কোন গ্রন্থে?

উত্তর: ঋকবেদের দশম মন্ডলের পুরুষসূক্ত তে।

৮৪. ষোড়শ মহাজনপদ সম্পর্কে কোন গ্রন্থ থেকে জানা যায়?

উত্তর: ভগবতী সূত্র ও অঙ্গুত্তরনিকায় নামক গ্রন্থ দুটি থেকে।

৮৫. বেদ সংশ্লিষ্ট কোনো প্রকার গ্রন্থে বানপ্রস্থ জীবনের ধর্মতত্ত্ব আলোচিত হয়েছে?

উত্তর: আরণ্যক গ্রন্থ বানপ্রস্থ জীবনের ধর্মতত্ত্ব আলোচিত হয়েছে।

৮৬. শব্দ সংখ্যার নিরিখে পৃথিবীর একক বৃহত্তম কাব্যগ্রন্থ কোনটি?

উত্তর: শব্দ সংখ্যার নিরিখে পৃথিবীর একক বৃহত্তম কাব্যগ্রন্থ হল মহাভারত।

৮৭. বিক্রমাংকদেবচরিত গ্রন্থে কোন রাজার কীর্তি কাহিনী বর্ণিত হয়েছে?

উত্তর: ষষ্ঠ বিক্রমাদিত্যের কীর্তি কাহিনী বর্ণিত হয়েছে।

৮৮. গঞ্জাম লেখ থেকে থেকে কোন রাজার কীর্তি কাহিনী জানা যায়?

উত্তর: গঞ্জাম লেখ থেকে শশাঙ্কের কীর্তিকাহিনী সম্পর্কে জানা যায়।

৮৯. নিচের কোন গ্রন্থটি লক্ষণ সেনের সমসাময়িক হলায়ুধ এর রচনা?

A. ব্রাহ্মণসর্বস্ব

B. বৈষ্ণবসর্বস্ব

C. শৈব সর্বস্ব

D. উল্লেখিত সবকটি

উত্তর: উল্লেখিত সবকটি।

৯০. যাগযজ্ঞের রীতিনীতি,  আচার অনুষ্ঠান ইত্যাদি সম্পর্কে বেদের কোন অংশে উল্লেখ পাওয়া যায়?

উত্তর: ব্রাহ্মণ অংশে।

৯১. নিচের কোনটি হিন্দু বিষয়ক গ্রন্থ? A. মত্তবিলাস B. বৃহৎকথা C. কাব্যদর্শ D. মিতাক্ষরা

উত্তর: D. মিতাক্ষরা

৯২. চালুক্য রাজ দ্বিতীয় পুলকেশীর কাছে হর্ষবর্ধনের পরাজয় কোন লিপি থেকে জানা যায়?

উত্তর: আইহোল লিপি থেকে জানা যায়।

৯৩. কোন বেদে সর্বাপেক্ষা বেশি মন্ত্র বা শ্লোক সংকলিত আছে?

উত্তর: ঋকবেদ।

৯৪. বেদ সংশ্লিষ্ট কোন প্রকার সাহিত্যে আত্মা ও পরম আত্মা সম্পর্কিত দর্শন প্রসঙ্গে আলোচনা করা হয়েছে?

উত্তর: উপনিষদ অংশে।

৯৫. গৌতম বুদ্ধের পূর্ব জীবন সম্পর্কে জানার গুরুত্বপূর্ণ উৎস কি?

উত্তর: গৌতম বুদ্ধের পূর্ব জীবন সম্পর্কে জানার গুরুত্বপূর্ণ উৎস হল জাতক।

৯৬. ব্যাকট্রিয় রাজা মিনান্দার ও বৌদ্ধ ভিক্ষুদের মধ্যকার কথোপকথন এর ভিত্তিতে রচিত গ্রন্থের নাম কি?

উত্তর: মিলিন্দপঞ্চহো।

৯৭. কোন গ্রন্থ থেকে আলেকজান্ডারের ভারত আক্রমণ সম্পর্কে সবিস্তারে জানা যায়?

উত্তর: ইন্ডিকা গ্রন্থ থেকে।

৯৮. নিচের কোন গ্রন্থটি চক্রপাণি দত্তের রচিত নয়?

A. চিকিৎসা সংগ্রহ  B. শব্দচন্দ্রিকা C. দ্রব্যগুনসংগ্রহ D. সবকটি।

উত্তর: শব্দচন্দ্রিকা।

৯৯. প্রাচীন ভারতের একটি জ্যোতির্বিদ্যা বিষয়ক গ্রন্থের নাম লেখ।

উত্তর: পঞ্চসিদ্ধান্তিকা হলো প্রাচীন ভারতের একটি জ্যোতির্বিদ্যা বিষয়ক গ্রন্থ।

১০০. অজন্তার গুহাচিত্র গুলিতে কিসের কাহিনী বর্ণিত হয়েছে?

উত্তর: জাতকের কাহিনী বর্ণিত হয়েছে।

১০১. নিচের কোন প্রাচীন দেশের লিপির নাম কিউনিফর্ম?

উত্তর: সুমের এর লিপির নাম কিউনিফর্ম লিপি।

১০২. গুজরাটের আঞ্চলিক ইতিহাস সম্পর্কে জানা যায় কোন গ্রন্থ থেকে?

উত্তর: রাসমালা।

১০৩. রাজতরঙ্গিনী বইটি থেকে কোন রাজ্যের ইতিহাস সম্পর্কে জানা যায়?

উত্তর: কাশ্মীরের ইতিহাস।

১০৪. পোড়ামাটির তালিতে লিখিত গিলগামেশ কোথাকার মহাকাব্য?

উত্তর: মেসোপটেমিয়ার মহাকাব্য।

১০৫. প্রাচীন গ্রন্থ জেন্দাবেস্তাই কি সংকলিত আছে?

উত্তর: জরাথ্রুস্টের উপদেশাবলী সংকলিত আছে।

১০৬. আলতামিরা গুহা কোথায় অবস্থিত?

উত্তর: স্পেনে অবস্থিত।

১০৭. ভীমবেটকা গুহাচিত্র কোথায় অবস্থিত?

উত্তর: মধ্যপ্রদেশে অবস্থিত।

১০৮. মালবিকাগ্নিমিত্রম বইটি কার লেখা?

উত্তর: কালিদাসের লেখা।

১০৯. পাল রাজাদের মুদ্রা কি নামে পরিচিত?

উত্তর: নারায়ণী।

১১০. চোলদের মুদ্রা কি নামে পরিচিত?

উত্তর: ক্যাশু নামে পরিচিত।

Read Also :-
Labels : #History ,
Getting Info...
Web & App Developer, Blogger , Youtuber , VRP @Social Audit Unit-WB Govt

Post a Comment

Please Comment , Your Comment is Very Important to Us.