কোনো অধ্যায়ের মকটেস্ট, প্রশ্ন-উত্তর কিংবা মতামত এর জন্য → Contact us !

Class 10 model activity task Life science part 8 mark 50 new 2021 দশম শ্রেণী জীবন বিজ্ঞান মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পার্ট ৮ মার্ক 50 | ক্লাস টেন লাইফ সাইন্স পার্ট ৮

Class 10 model activity task Life science part 8 mark 50 new 2021 দশম শ্রেণী জীবন বিজ্ঞান মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পার্ট ৮ মার্ক 50 ক্লাস টেন part 8

Class 10 model activity task Life Science 2021 part 8  বা দশম শ্রেণী জীবন বিজ্ঞান মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পার্ট ৮ এর সমস্ত প্রশ্ন উত্তর নিয়ে আজকের পর্বে আমরা আলোচনা করব। এর আগেও আমরা 2020 সালের দশম শ্রেণী জীবন বিজ্ঞান মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর উত্তর প্রকাশ করেছিলাম যা তোমাদের খুবই পছন্দ হয়েছিল। আশা করি তোমাদের এবারও পছন্দ হবে। তাহলে চলো শুরু করা যাকঃ



১. প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে তার ক্রমিক সংখ্যাসহ বাক্যটি সম্পূর্ণ করে লেখো :

১.১ উদ্ভিদের পর্বমধ্যের দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি ঘটায় যে হরমোন সেটি নির্বাচন করো –
(ক) অক্সিন
(খ) জিব্বেরেলিন
(গ) সাইটোকাইনি
(ঘ) NAA

উত্তর: উদ্ভিদের পর্বমধ্যের দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি ঘটায় যে হরমোন সেটি হল জিব্বেরেলিন হরমোন।


১.২ নীচের বক্তব্যগুলি থেকে মায়োপিয়ার সঙ্গে সম্পর্কিত সমস্যাটি চিহ্নিত করো –

(ক) চোখের লেন্সের স্থিতিস্থাপকতা নষ্ট হয়ে যাওয়া

(খ) বস্তুর প্রতিবিম্ব রেটিনার সামনে গঠিত হওয়া

(গ) চোখের লেন্সের স্বচ্ছতা নষ্ট হয়ে যাওয়া

(ঘ) বস্তুর প্রতিবিম্ব রেটিনার পেছনে গঠিত হওয়া

উত্তর: মায়োপিয়ার সঙ্গে সম্পর্কিত সমস্যাটি হল - " (খ) বস্তুর প্রতিবিম্ব রেটিনার সামনে গঠিত হওয়া "


১.৩ নীচের যে জোড়টি সঠিক তা স্থির করো
(ক) STH – থাইরয়েড গ্রন্থির বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করা
(খ) ACTH – স্ত্রীদেহে ডিম্বাশয়ে গ্রাফিয়ান ফলিকলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করা
(গ) FSH – রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা
(ঘ) ADH– বৃক্কীয় নালিকায় জলের পুনঃশোষণ ঘটানো

উত্তর: (ঘ) ADH– বৃক্কীয় নালিকায় জলের পুনঃশোষণ ঘটানো

১.৪ মানবদেহে করোটি স্নায়ুর সংখ্যা নিরূপণ করো -

(ক) ১০ জোড়া

(খ) ১২ জোড়া

(গ) ২১ জোড়া

(ঘ) ৩১ জোড়া

উত্তরঃ মানবদেহে করোটি স্নায়ুর সংখ্যা ১২ জোড়া


১.৫ পাতার মাধ্যমে প্রাকৃতিক অঙ্গজ বংশবিস্তার করে যে উদ্ভিদ সেটি নির্বাচন করো -

(ক) মিষ্টি আলু
(খ) কচুরিপানা
(গ) আদা
(ঘ) পাথরকুচি

উত্তর : পাতার মাধ্যমে প্রাকৃতিক অঙ্গজ বংশবিস্তার করে যে উদ্ভিদ সেটি হল- (ঘ) পাথরকুচি

১.৬ সংকরায়ন পরীক্ষার জন্য মেন্ডেলের মটর গাছ বেছে নেওয়ার সঠিক কারণটি স্থির করো
(ক) মটর গাছের বংশবিস্তারে অনেক সময় লাগে
(খ) মটর গাছে বিপরীতধর্মী বৈশিষ্ট্যের উপস্থিতি খুবই কম
(গ) মটর ফুল স্বপরাগী হওয়ায় বাইরে থেকে অন্য চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য মিশে যাওয়ার সম্ভাবনা কম
(ঘ) মটর গাছের ফুল গুলিতে কৃত্রিমভাবে ইতর পরাগযোগ ঘটানো সম্ভব নয়

উত্তর : সংকরায়ন পরীক্ষার জন্য মেন্ডেলের মটর গাছ বেছে নেওয়ার সঠিক কারণটি হল- (গ) মটর ফুল স্বপরাগী হওয়ায় বাইরে থেকে অন্য চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য মিশে যাওয়ার সম্ভাবনা কম

১.৭ নীচের যে জোড়টি সঠিক নয় তা নির্বাচন করাে—

(ক) ঈস্ট – কোরকোদগম

(খ) মস – রেণু উৎপাদন

(গ) প্লাসমােডিয়াম – পুনরুৎপাদন।

(ঘ) অ্যামিবা – দ্বিবিভাজন

উত্তর - (গ) প্লাসমােডিয়াম– পুনরুৎপাদন

১.৮ নীচের যে দুটি জিনােটাইপ গিনিপিগের কালাে ও মসৃণ ফিনােটাইপের জন্য দায়ী তা চিহ্নিত করাে—

(ক) BBRR ও BbRr

(খ) BBrr ও Bbrr

(গ) BBRr ও BbRR

(ঘ) bbRr ও bbrr

উত্তর - (খ) BBrr ও Bbrr


১.৯ স্বাভাবিক পিতা এবং বর্ণান্ধতার বাহক মাতার বর্ণান্ধ কন্যাসন্তান জন্মানাের সম্ভাবনা নিরূপণ করাে–

(ক) 0%

(খ) 25%

(গ) 50%

(ঘ) 100%

উত্তর -(ক) 0%


২. নীচের বাক্যগুলির শূন্যস্থানগুলিতে উপযুক্ত শব্দ বসাও :

২.১ ডাবের জলে ______ হরমোন থাকে।

উত্তর: ডাবের জলে সাইটোকাইনিন হরমোন থাকে।

২.২ পায়রার একটি ডানায় ______ টি রেমিজেস নামক পালক থাকে।

উত্তর: পায়রার একটি ডানায় 23 টি রেমিজেস নামক পালক থাকে।

২.৩ RNA-তে থাইমিনের পরিবর্তে ______ থাকে।

উত্তর: RNA-তে থাইমিনের পরিবর্তে ইউরাসিল থাকে।

৩. নীচের বাক্যগুলাে সত্য অথবা মিথ্যা নিরূপণ করাে:

৩.১ অযৌন জননে দুটি জনিতৃ জীবের প্রয়ােজন হয়।

উত্তর - মিথ্যা ।

(কারণ একটি জনিতৃ জীবের প্রয়োজন হয়।)

৩.২ সপুষ্পক উদ্ভিদে নিষেকের পর ডিম্বকটি ফলে পরিণত হয়।

উত্তর - মিথ্যা। 

(কারণ - ডিম্বকটি বীজ এ পরিনত হয়।)

২.৩ কোনাে জীবের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের বাহ্যিক প্রকাশকে ফিনােটাইপ বলে।

উত্তর - সত্য ।

৪. A স্তম্ভে দেওয়া শব্দের সঙ্গে B-স্তম্ভে দেওয়া সর্বাপেক্ষা উপযুক্ত শব্দটির সমতা বিধান করে উভয় স্তম্ভের ক্রমিক নং উল্লেখসহ সঠিক জোড়টি পুনরায় লেখো :

"A" স্তম্ভ"B" স্তম্ভ
৪.১ অন্ধবিন্দু(a) মাইটোসিস
৪.২ ক্রসিং ওভার(b) স্টক ও সিয়ন
৪.৩ গ্রাফটিং(c)  রেটিনা ও অপটিক স্নায়ুর সংযোগস্থল
(d) মিয়োসিস

উত্তর :

"A" স্তম্ভ"B" স্তম্ভ
২.১ অন্ধবিন্দু(d) রেটিনা ও অপটিক স্নায়ুর সংযোগস্থল
২.২ ক্রসিং ওভার(c) মিয়োসিস
২.৩ গ্রাফটিং(a) স্টক এবং সিয়ন


৫. একটি শব্দে বা একটি বাক্যে উত্তর দাও:

৫.১ মানব বিকাশের বয়ঃসন্ধি দশার একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করো।

উত্তর : মানব বিকাশের বয়ঃসন্ধি দশার একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য বয়ঃসন্ধিকাল (1220 বছর) হল মানবদেহের মুখ্য বৃদ্ধি কাল এই সময়ে পেশি ও অস্থির বৃদ্ধি, জনন অঙ্গের বৃদ্ধি পায় এবং গ্যামেট উৎপাদন শুরু হয়।

৫.২ বিসদৃশ শব্দটি বেছে লেখো : মটরের সবুজ রঙের বীজ, মটরের সবুজ রঙের ফল, গিনিপিগের সাদা রঙের লোম, গিনিপিগের মসৃণ লোম।

উত্তর : বিসদৃশ শব্দটি হল মটরের সবুজ রঙের ফল ।

২.৩ নিচে সম্পর্কযুক্ত একটি শব্দ জোড় দেওয়া আছে। প্রথম জোড়টির সম্পর্ক বুঝে দ্বিতীয় জোড়টির শূন্যস্থানে উপযুক্ত শব্দ বসাও

মাইটোসিস : ভ্রুনমূল :: ______ :  রেণু মাতৃকোষ

উত্তর : মাইটোসিস : ভ্রুনমূল :: মিয়সিস :  রেণু মাতৃকোষ

৬. দুটি বা তিনটি বাক্যে উত্তর দাও :

৬.১ নিম্নলিখিত বৈশিষ্টোর ওপর ভিত্তি করে অন্তঃক্ষরা ও বহিঃক্ষরা গ্রন্থির পার্থক্য নিরূপণ করো ।

  • নালির উপস্থিতি ও অনুপস্থিতি
  • ক্ষরিত পদার্থ

উত্তর: "নিচে অন্তক্ষরা বহিক্ষরা গ্রন্থির পার্থক্য এর মধ্যে থেকে কেবল প্রথম দুটি পার্থক্য লিখতে হবে।"

বিষয়অন্তক্ষরা গ্রন্থিবহিক্ষরা গ্রন্থি
নালির উপস্থিতি ও অনুপস্থিতি1. অন্তক্ষরা গ্রন্থিতে নালি অনুপস্থিত।1. বহিক্ষরা গ্রন্থিতে নালি উপস্থিত।
ক্ষরিত পদার্থ2. অন্তক্ষরা গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত হরমোন।2. বহিক্ষরা গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত হয় উৎসেচক, ঘর্ম, সিবাম, লালারস ইত্যাদি।
কার্য স্থল3. অন্তক্ষরা গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত পদার্থ উৎস স্থল থেকে বাহিত হয়ে দূরবর্তী স্থানে কার্যকর হয়।3. বহিক্ষরা গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত পদার্থ নালি দ্বারা বাহিত হয়ে গ্রন্থির বাইরে বেরিয়ে আসে এবং উৎপত্তিস্থলেই কার্যকরী হয়।
কার্য স্থলের ব্যাপ্তি4. অন্তঃক্ষরা গ্রন্থির ক্ষরিত পদার্থের কাজের পরিধি ব্যাপক।4. বহিক্ষরা গ্রন্থির ক্ষরিত পদার্থ দেহের সীমিত স্থানে কাজ করে।
ক্ষরিত পদার্থের নির্গমন প্রক্রিয়া5. অন্তক্ষরা গ্রন্থি ক্ষরিত পদার্থও ব্যাপন প্রক্রিয়া সরাসরি রক্তে মেশে।5. বহিক্ষরা গ্রন্থি ক্ষরিত পদার্থ নির্গত নালী পথে সরাসরি ক্রিয়াস্থলে পৌঁছায়।

৬.২ মাইটোসিসের সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী দশায় নিউক্লিয়াসের কী কী পরিবর্তন ঘটে তা বর্ণনা করো।

উত্তর: মাইটোসিসের সবথেকে দীর্ঘস্থায়ী দশা হল 


উত্তর: প্রোফেজ দশা উদ্ভিদ ও প্রাণী উভয় কোষের নিউক্লিয়াসে নিম্নলিখিত পরিবর্তনগুলি ঘটে:

  • নিউক্লিয়াস টি আকারে ও আয়তনে বৃদ্ধি পায়।
  • জল বিভাজনের ফলে নিউক্লিয়াসের নিউক্লিয় জালক থেকে সূত্রাকার ক্রোমোজোম গঠিত হয়।
  • নিউক্লিওলাস টি ক্রমশ ছোট হতে থাকে।
  • এই পর্যায়ের শেষের দিকে নিউক্লিয় পর্দা ও নিউক্লিওলাস বিলুপ্ত হতে শুরু করে।

৬.৩ ট্রপিক ও ন্যাস্টিক চলনের দুটি পার্থক্য লেখ।

উত্তরঃ ট্রপিক ও ন্যাস্টিক চলনের পার্থক্য

বিষয়ট্রপিক চলনন্যাস্টিক চলন
উদ্দীপকের ভূমিকাট্রপিক চলন উদ্দীপকের উৎসের অভিমুখ এর উপর নির্ভর করে।ন্যাস্টিক চলন উদ্দীপকের তীব্রতার উপর নির্ভর করে।
চলন এর প্রকৃতিট্রপিক চলন স্থায়ী ও বৃদ্ধিজনিত।ন্যাস্টিক চলন অস্থায়ী ও রসস্ফীতি জনিত।
হরমোনের ভূমিকাটপিক চলনঅক্সিন হরমোন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।ন্যাস্টিক চলনে অক্সিন হরমোনের কোন ভূমিকা নেই।
উদাহরণগাছের ডাল আলোর দিকে বেঁকে যাওয়া।বেশি উষ্ণতায় টিউলিপ ফুল ফোটা।

৬.৪ স্বপরাগযোগের একটি সুবিধা ও অসুবিধা উল্লেখ করো

উত্তর: স্বপরাগযোগের একটি সুবিধা স্বপরাগযোগ এর জন্য কোন বাহকের প্রয়োজন হয়না এবং একই প্রজাতির ফুলে পরাগযোগের জন্য প্রজাতির বৈশিষ্ট্য রক্ষা পায় ও প্রজাতির মধ্যে জনিতৃ বৈশিষ্ট্য প্রকাশ পায়।

▣ স্বপরাগযোগের একটি অসুবিধা :

স্বপরাগযোগে বাহকের অনুপস্থিতির জন্য অনুন্নত মানের ফল ও বীজ উৎপন্ন হয়। নতুন বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন উদ্ভিদ উৎপন্ন হয় না এবং নতুন বংশধরদের অভিযোজন ক্ষমতা কম থাকে ।

৬.৫ একসংকর জননে F2 জনুর ফিনোটাইপিক অনুপাত সবসময় 3:1 নাও হতে পারে উদাহরণের সাহায্যে ব্যাখ্যা করো।

উত্তর: অসম্পূর্ণ প্রকটতার ক্ষেত্রে একসংকর জননে F2 জনুর ফিনোটাইপিক অনুপাত সবসময় 3:1 হয় না। যেমন সন্ধ্যামালতি (Mirabilis Jalapa) উদ্ভিদের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যে, বিশুদ্ধ লাল ফুল যুক্ত ও বিশুদ্ধ সাদা ফুল যুক্ত গাছের ইতর পরাগযোগ ঘটালে Fj জনুতে উৎপন্ন সমস্ত গাছ গোলাপি ফুল যুক্ত হয়। F1 জনুর গোলাপি ফুল বিশিষ্ট গাছ গুলির স্বপরাগযোগ ঘটালে F2 জনুতে লাল, গোলাপি ও সাদা ফুল বিশিষ্ট গাছের আবির্ভাব হয় ও তাদের ফিনোটাইপিক অনুপাত 1:2:1 হয়। সন্ধ্যামালতি উদ্ভিদের একসংকর জননে F2 জনুর জিনোটাইপিক অনুপাতও সবসময় 1:2:1 হয়। সুতরাং একসংকর জননে F জনুর ফিনোটাইপিক অনুপাত সবসময় 3:1 নাও হতে পারে।

৬.৬ . নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যের উপর ভিত্তি করে অযৌন অযৌন জননের পার্থক্য উল্লেখ করো: 
  • গ্যামেট উৎপাদন
  • মাইটোসিস ও মিয়োসিস এর উপর নির্ভরতা।

উত্তর:

বিষয়অযৌন জননযৌন জনন
গ্যামেট উৎপাদনঅযৌন জননের গ্যামেট উৎপাদন হয় নাযৌন জননের পুং গ্যামেট ও স্ত্রী গ্যামেট সৃষ্টি হয়।
মাইটোসিস ও মিয়োসিস এর উপর নির্ভরতাএই প্রকার জননী কেবল মাইটোসিস কোষ বিভাজন ঘটেএই প্রকার জননী গ্যামেট উৎপাদন কালে মিয়োসিস এবং জাইগোট থেকে অপত্য জীব উৎপাদন কালে মাইটোসিস কোষ বিভাজন ঘটে।


৬.৭ মাইক্রোপ্রােপাগেশন পদ্ধতিতে কীভাবে প্লান্টলেট সৃষ্টি করা হয় তা একটি রেখাচিত্রের সাহায্যে দেখাও।

উত্তরঃ  প্রদত্ত রেখাচিত্র নিম্নরূপ —


উদ্ভিদের পাতা
কলা নমুনা
কর্ষণ মাধ্যমে কলা নমূনা
ক্যালাস গঠন
এমব্রিয়য়েড গঠন
প্ল্যান্টলেট গঠন


৭. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও :

৭.১ প্রাণীকোশের মাইটোসিস কোশ বিভাজনের মেটাফেজ দশার পরিচ্ছন্ন চিত্র অঙ্কন করে নিম্নলিখিত অংশগুলো চিহ্নিত করো :

(ক) ক্রোমাটিড (খ) মেরু অঞ্চল (গ) সেন্ট্রোমিয়ার (ঘ) বেমতত্তু

প্রাণীকোশের মাইটোসিস কোশ বিভাজনের মেটাফেজ দশার পরিচ্ছন্ন চিত্র অঙ্কন

(চিত্রঃ মাইটোসিস এর মেটাফেজ দশা)


(কেবল দৃষ্টিহীন শিক্ষার্থীদের জন্য)

▣  প্রাণীকোশের মাইটোসিস কোশ বিভাজনের মেটাফেজ দশার তিনটি এবং টেলোফেজ দশার দুটি বৈশিষ্ট্য লেখো।


উত্তর: 

▣ মেটাফেজ দশার বৈশিষ্ট্য:

  1. মেটাফেজ দশার নিউক্লিয় পর্দা ও নিউক্লিওলাস বিলুপ্ত হয়।
  2. উদ্ভিদ কোষের ক্ষেত্রে মাইক্রোটিউবিউল গুলি একত্রিত হয়ে বেমতন্তু গঠিত হয় এবং প্রাণী কোষের ক্ষেত্রে সেন্ট্রিওলের অ্যাস্ট্রাল রশ্মি দ্বারা বেমতন্তু গঠিত হয়।
  3. এই দশার শেষের দিকে ক্রোমোজোমের সেন্ট্রোমিয়ার অনুদৈর্ঘ্য ভাবে দ্বিখণ্ডিত হতে শুরু হয়।

▣  টেলোফেজ দশার বৈশিষ্ট্য:

  1. টেলোফেজ দশা আর শুরুতে বেমের উভয় প্রান্তে সমান সংখ্যক ক্রোমোজোম থাকে এবং ক্রোমোজোম গুলি খুলে দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পায় ।
  2. নিউক্লিয়াসের মধ্যে নিউক্লিওলাসের পুনরাবির্ভাব ঘটে।

.২ একটি কোশচক্রের বিভিন্ন বিন্দুতে স্বাভাবিক নিয়ন্ত্রণ নষ্ট হলে কী ঘটতে পারে?
 ▣ জীবের বৃদ্ধি, প্রজনন ও ক্ষয়পূরণে কীভাবে কোশ বিভাজন দ্বারা নিয়ন্ত্রণ হয় তা বিশ্লেষণ করো।


উত্তরঃ একটি কোষচক্রের বিভিন্ন বিন্দুতে স্বাভাবিক নিয়ন্ত্রন নষ্ট হলে , অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজন ঘটে , যা পরবর্তীকালে টিউমার সৃষ্টি করে। ম্যালিগন্যান্ট কোষ ঘটিত টিউমার কখনো ক্যান্সার সৃষ্টি করতে পারে যা বিপজ্জনক হতে পারে।

জীবের বৃদ্ধি, প্রজনন ও ক্ষয়পূরণ কোশ বিভাজন দ্বারা প্রত্যক্ষ ভাবে নিয়ন্ত্রিত হয় - 
  • ▣ বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রনে কোষ বিভাজনের ভুমিকা:  মাইটোসিস পদ্ধতিতে কোষ বিভাজনের মাধ্যমে বহুকোষী জীবদেহে কোষের সংখ্যা বৃদ্ধি  ঘটে । এর ফলে জীবদেহের সামগ্রিক বৃদ্ধি ও পরিস্ফুটন ঘটে।
  • ▣ প্রজনন নিয়ন্ত্রনে কোষ বিভাজনের ভুমিকা: নিম্নশ্রেনির জীবেরা অ্যামাইটোসিস পদ্ধতিতে অযৌন জনন সম্পন্ন হয় এবং জীবের বংশবৃদ্ধি ঘটে।
  • ▣ ক্ষয়পূরণ নিয়ন্ত্রনে কোষ বিভাজনের ভুমিকা: মাইটোসিস কোষ বিভাজনের মাধ্যমে জীবদেহে নতুন অপত্য কোষ সৃষ্টি হয়। এর ফলে জীবদেহের ক্ষয়পূরণ ও ক্ষতস্থান নিরাময় ঘটে।

৭.৩ একটি বিশুদ্ধ হলুদ ও গােল বীজযুক্ত মটর গাছের (YYRR) সঙ্গে একটি বিশুদ্ধ সবুজ ও কুঞ্চিত বীজযুক্ত মটর গাছের (yyrr) সংকরায়ণের ফলাফল F₂ জনু পর্যন্ত চেকার বাের্ডের সাহায্যে দেখাও। এই সংকরায়ণ থেকে বংশগতির যে সূত্রটি পাওয়া যায় তা বিবৃত করাে ।

উত্তর – এই দ্বিসংকর জননের সংকরায়ন থেকে বংশগতির ‘স্বাধীন সঞ্চারণ সূত্র’ টি পাওয়া যায় ।

স্বাধীন সঞ্চারণ সূত্র - কোন জীবের দুই বা ততােধিক যুগ্ম বিপরীতধর্মী বৈশিষ্ট্যগুলি জনিতৃ জনু থেকে অপত্য অনুতে সঞ্চারিত হওয়ার সময় একত্রিত হলেও শুধুমাত্র গ্যামেট গঠনকালে এরা যে পরস্পর থেকে পৃথক হয় তাই নয়, উপরক্ত প্রত্যেকটি বৈশিষ্ট্য তাদের ভাবে যেকোন বিপরীত বৈশিষ্ট্যের সঙ্গে সম্ভাব্য সকল প্রকার সমন্বয়ে সঞ্চারিত হয়।

 

Web & App Developer, Blogger , Youtuber , VRP @Social Audit Unit-WB Govt

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Please Comment , Your Comment is Very Important to Us.