খাদ্য সন্ধানের উদ্দেশ্যে মৌমাছির আচরণগত অভিযোজন । মৌ নৃত্যের মাধ্যমে মৌমাছির বার্তা আদান প্রদান কিভাবে ঘটে new 2020

খাদ্য সন্ধানের উদ্দেশ্যে মৌমাছির আচরণগত অভিযোজন । মৌ নৃত্যের মাধ্যমে মৌমাছির বার্তা আদান প্রদান কিভাবে ঘটে বৃত্তাকার বা চক্রাকার মৌ নৃত্য ওয়াগল ডান্স

মৌচাকের কর্মী মৌমাছির খাদ্য সংগ্রহ করে। সাধারণত মৌচাকে দুই ধরনের কর্মী মৌমাছি দেখা যায়। এরা হল (i) খাদ্য সন্ধানী কর্মী মৌমাছি বা স্কাউট ও (ii) খাদ্য সংগ্রাহক কর্মী মৌমাছি বা ফোরেজার।


    মৌ নৃত্যের মাধ্যমে মৌমাছির বার্তা আদান প্রদান


    মৌমাছির বার্তা আদান-প্রদান

    খাদ্য সন্ধানী করবে মৌমাছিরা কোথায় ফুলের মকরন্দ রয়েছে তা সন্ধান করে। খাদ্যের সন্ধান পেলে এরা মৌচাকে ফিরে এসে বিশেষ ধরনের নাচের মাধ্যমে অন্য মৌমাছিদের সেই খাদ্যের উৎস সম্পর্কে তথ্য জানায়। এই নাচকে এই মৌনৃত্য বলে। মৌ নৃত্যের সময় প্রতি সেকেন্ডের জন্য খাদ্য উৎসের দূরত্ব হবে প্রায় ১০০০ মিটার হিসেবে তারা প্রকাশ করে। আচরণ বিজ্ঞানি কার্ল ফন ফ্রিশ সর্বপ্রথম মৌমাছি নৃত্যের অর্থ আবিষ্কার করেন ও 1973 সালে এর জন্য তিনি নোবেল পুরস্কার পান।


    মৌনৃত্যের প্রকারভেদ

    খাদ্য সন্ধানকারী কর্মী মৌমাছির প্রধানত দুই ধরনের মৌ নৃত্য করে থাকে যথা বৃত্তাকার বা চক্রাকার নৃত্য ও ওয়াগল নৃত্য।


    বৃত্তাকার বা চক্রাকার মৌ নৃত্য

    খাদ্যের উৎসের দূরত্বের উপর নির্ভর করে খাদ্য সন্ধানে শ্রমিক মৌমাছিরা এই নৃত্য প্রদর্শন করে। খাদ্যের উৎস 50 থেকে 75 মিটার এর মধ্যে হলে এই প্রকার নৃত্য প্রদর্শিত হয়। খাদ্য সন্ধানী মৌমাছিদের পিছনে সংগ্রাহক মৌমাছিরাও তখন ধাবিত হয় ও তারাও একই নৃত্য করতে থাকে।

    [ Video Credit : The BeeGroup @VT]

    মৌমাছির বৃত্তাকার নৃত্যের গুরুত্ব

    চক্রাকার নিত্য দ্বারা নিকটবর্তী স্থানে খাদ্যের উৎস সম্পর্কে অন্যকে জানাতে এবং পক্ষান্তরে সেই উৎস থেকে মৌমাছিকে খাদ্য সংগ্রহ করতে সাহায্য করে।


    ওয়াগল ডান্স বা ওয়াগল নৃত্য

    ইংরেজি  ওয়াগল শব্দের অর্থ আন্দোলন বা কম্পন।খাদ্যের উৎস 50 থেকে 75 মিটারের থেকে বেশি দূরে হলে স্কাউট মৌমাছিরা এই প্রকার নৃত্য প্রদর্শন করে। এই নৃত্য ইংরেজি 8 সংখ্যার মত আকৃতি বিশিষ্ট হয়। স্কাউট একবার ডান দিকে ও একবার বাঁদিকে তারা লুপ তৈরি করে এবং নাচের সময় লুপ এর মধ্যে সরলরৈখিক অংশে সন্ধানী মৌমাছির ও ধ্বংস ওপর-নিচে আন্দোলিত হয়।

    ওয়াগল নৃত্যের গুরুত্ব

    • ওয়াগল বৃত্তের সমীকরণ এর মাত্রা থেকে খাদ্যের অবস্থানের দূরত্ব সম্পর্কে জানা যায় ।
    • সূর্যের সাপেক্ষে নাচের কৌণিক অভিমুখ থেকে খাদ্যের উৎস এর দিক নির্ধারণ করা যায়।
    • ঊর্ধ্বমুখী নাচ থেকে বোঝা যায় যে খাবারের উৎস এর অবস্থান সূর্যের দিকে এবং নিম্নমুখী নাচ থেকে বোঝা যায় যে খাবারের অবস্থান সূর্যের বিপরীত দিকে।


    Post a Comment

    Please Comment , Your Comment is Very Important to Us.