Header Ads Widget

মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান অধ্যায় আলো এর গুরুত্বপূর্ণ সাজেশন Madhyamik physical science suggestion 2021 light

 মাধ্যমিক পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেতে হলে ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষায় অবশ্যই ভালো নম্বর পেতে হবে। মাধ্যমিক ভৌতবিজ্ঞান এর গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় গুলির মধ্যে আলো অন্যতম। আজকে আমরা মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান অধ্যায় আলো এর 2021 সাজেশন মূলক কিছু প্রশ্ন উত্তর নিয়ে আলোচনা করব।

Madhyamik physical science


মাধ্যমিক সাজেশন ভৌত বিজ্ঞান অধ্যায় আলো এর 2021 


1. সমতল দর্পণের বক্রতা ব্যাসার্ধ কত?
উত্তর: অসীম।


2. অবতল দর্পণের বক্রতা কেন্দ্র থেকে দূরে কোন বস্তু রাখলে প্রতিবিম্ব কেমন হবে?
উত্তর: অসদ ও বিবর্ধিত।


3. অবতল দর্পণের ফোকাস ও বক্রতা কেন্দ্রের মাঝে কোন বস্তু রাখলে প্রতিবিম্ব কেমন হবে?
উত্তর: সদ ও বিবর্ধিত।


4. উত্তল দর্পণ কখন সদবিম্ব গঠন করে?
উত্তর: উত্তল দর্পণের সামনে বস্তুকে যদি ফোকাস দূরত্ব অপেক্ষা কম দূরত্বে রাখা হয় তখন বস্তুর সদবিম্ব গঠন করবে।


5. রৈখিক উন্মেষ কাকে বলে?
উত্তর: কোন গোলীয় দর্পণ যে কাল্পনিক গোলকের অংশ তার ব্যাস কে রৈখিক উন্মেষ বলা হয়।


6. উপাক্ষীয় রশ্মি কাকে বলে?
উত্তর: যেসব আলোকরশ্মী গোলীয় দর্পণের প্রধান অক্ষের সঙ্গে ক্ষুদ্র কোণ-এ মেরুর কাছে আপাতিত হয় তাদের উপাক্ষীয় রশ্মি বলে।

7. সমতল দর্পণের ফোকাস দূরত্ব কত?
উত্তর: অসীম।

8. দূরবীন যন্ত্রে প্রতিফলক হিসেবে কোন দর্পণ ব্যবহার করা হয়?
উত্তর: অবতল দর্পণ।

9. রৈখিক বিবর্ধন এর একক কি?
উত্তর: রৈখিক বিবর্ধন এর একক নেই।


10. গাড়ির হেডলাইটে কোন ধরনের গোলীয় দর্পণ ব্যবহার করা হয়?
উত্তর: অবতল দর্পণ।

11. গাড়িচালক ভিউফাইন্ডারে কোন দর্পণ ব্যবহার করেন?
উত্তর: উত্তল দর্পণ।

12. অবতল দর্পণে সদ বিম্ব এর ক্ষেত্রে রৈখিক বিবর্ধনের মান ধনাত্মক- উক্তিটি সত্য না মিথ্যা।
উত্তর: সত্য।

13. একটি দর্পণ এর প্রকৃতি কিভাবে বুঝবে?
উত্তর: কোন দর্পণের কাছে যদি একটি বস্তু রাখলে ঠিক বস্তুটির সমান সাইজের প্রতিবিম্ব তৈরি হয় তাহলে বুঝবো যে দর্পণটি সমতল দর্পণ।আর যদি প্রতিবিম্ব বিবর্ধিত ও সমশির্ষ হয় তাহলে দর্পনটি অবতল দর্পণ। আবার যদি প্রতিবিম্ব সমশীর্ষ এবং আকারে ছোট হয় তাহলে দর্পণটি উত্তল দর্পণ।

14. মুখ্য ফোকাস ও গৌণ ফোকাস এর পার্থক্য লেখ।


15. গাড়ির হেডলাইটে কি ধরনের দর্পণ ব্যবহার করা হয় এবং কেন?
উত্তর: গাড়ির হেডলাইটে অবতল দর্পণ ব্যবহার করা হয়।

◾ অবতল দর্পণের ফোকাসে একটি বাল্ব রাখা থাকে। বাল্বটি জ্বললে উৎপন্ন অপসারী আলোকরশ্মি অবতল দর্পণে প্রতিফলিত হয়ে সমান্তরাল আলোকরশ্মি গুচ্ছ পরিণত হয় এবং অনেক দূর পর্যন্ত যায়। এর ফলে চালক রাতের অন্ধকারে অনেক দূরের বস্তু কে দেখতে পায়।

16. কোন বস্তুর প্রতিবিম্বের রৈখিক বিবর্ধন 3.5 বলতে কী বোঝো?

উত্তর: কোন বস্তুর প্রতিবিম্বের রৈখিক বিবর্ধন 3.5 বলতে বোঝায়, ওই বস্তুর প্রতিবিম্ব ও ঐ বস্তুর আকার এর অনুপাত 3.5। অর্থাৎ বস্তুর প্রতিবিম্ব বস্তুটির প্রকৃত আকারের চেয়ে 3.5 গুন বড়।

17. সদ বিম্ব ও অসদ বিম্বের পার্থক্য লেখ।


18. একটি গোলীয় দর্পণ কে জলে নিমজ্জিত করলে তার ফোকাস দৈর্ঘ্যের কোন পরিবর্তন হবে কি?
উত্তর: একটি গোলীয় দর্পণ কে জলে ডোবালে বা নিমজ্জিত করলে ওর ফোকাস দৈর্ঘ্যের কোন পরিবর্তন হবে না। কারণ যে কোন মাধ্যমে আলোর প্রতিফলনের ক্ষেত্রে একই সূত্র মেনে চলে।

19. অবতল দর্পণ দ্বারা কিভাবে অসৎ প্রতিবিম্ব গঠন করবে তা চিত্রসহ বর্ণনা করো।

চিত্রে PQ বস্তু অবতল দর্পণের ফোকাস F এবং মেরু O-এর মধ্যে প্রধান অক্ষের উপর লম্বভাবে রাখা হল। P বিন্দু থেকে প্রধান অক্ষের সমান্তরাল PR রশ্মি MM¹ দর্পণের R বিন্দুতে আপতিত হয়ে RF পথে প্রতিফলিত হয়, P বিন্দু থেকে অর একটি রশ্মি দর্পণের A বিন্দুতে আপতিত হয়ে AC পথে বক্রতাকেন্দ্রের (C) মধ্যে দিয়ে প্রতিফলিত হয়। RF এবং AC রশ্মি দুটি অপসারী বলে এরা সত্যি কোনাে বিন্দুতে ছেদ করবে না। তবে রশ্মি দুটিকে পিছনের দিকে বর্ধিত করলে রশ্মি দুটি P¹ বিন্দু থেকে অপসৃত হচ্ছে বলে 1 মনে হবে। এখন P¹ থেকে প্রধান অক্ষের উপর P¹Q¹ লম্ব টানা হল। P¹Q¹ হল PQ বস্তুটির প্রতিবিম্ব।

এই প্রতিবিম্বটি অসদ, সমশীর্ষ এবং বস্তুটির থেকে আকারে বড় হয়।

20. প্রতিসারঙ্ক এর একক কি?
উত্তর: প্রতিসারঙ্ক এর কোন একক নেই।

21. আয়তো কার কাচের স্লাবে আলোকরশ্মি আপতিত হলে আপতিত রশ্মি নির্গত রশ্মির মধ্যে চ্যুতি কোণ কত?
উত্তর: এক্ষেত্রে চ্যুতি কোণ 0°

22. কাচের দণ্ডকে গ্লিসারিন ডোবালে তা অদৃশ্য হয়ে যায় কেন?
উত্তর: উভয়ের প্রতিসরাঙ্কের মান সমান হয় বলে।

23. বায়ুর সাপেক্ষে কাচের প্রতিসরাঙ্ক 1.5 বলতে কী বোঝো?
উত্তর: বায়ুর সাপেক্ষে কাচের প্রতিসরাঙ্ক 1.5 বলতে বোঝায় হলুদ বর্ণের আলোকরশ্মি বায়ু মাধ্যম থেকে কাচ মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হলে আপাতন কোণের সাইন ও প্রতিসরণ কোণের অনুপাত 1.5 হবে।

24. একটি বস্তুকে একটি উত্তল লেন্সের ফোকাস রাখা হলে ঐ বস্তুর প্রতিবিম্ব কোথায় গঠিত হবে?
উত্তর: লেন্স থেকে বস্তুর বিপরীত দিকে ফোকাস দূরত্বের দ্বিগুণ দূরত্বে তৈরি হবে।

25. কোন লেন্স সর্বদা অসদ বিম্ব গঠন করে?
উত্তর: অবতল লেন্স

26. দীর্ঘ দৃষ্টি সম্পন্ন ব্যক্তি কে কি ধরনের লেন্স ব্যবহার করতে হয়?
উত্তর: উত্তল লেন্স।

27. স্বল্প বা রহস্য দৃষ্টি ত্রুটি যুক্ত লোক কি ধরনের লেন্স ব্যবহার করেন?
উত্তর: অবতল লেন্স।

28. চোখের উপযোজন কাকে বলে?
উত্তর: চোখের লেন্সের ফোকাস দৈর্ঘ্য পরিবর্তন করে দূরের বা কাছের বস্তুর প্রতিবিম্ব রেটিনায় উৎপন্ন করার ক্ষমতাকে চোখের উপযোজন ক্ষমতা বলে।


29. স্বাভাবিক ও সুস্থ মানুষের চোখের ক্ষেত্রে স্পষ্ট দর্শনের নূন্যতম দূরত্বের মান কত?
উত্তর: 25 সেন্টিমিটার।

30. কোন বর্ণের আলোর জন্য উত্তল লেন্সের ফোকাস দৈর্ঘ্য সর্বাধিক?
উত্তর: লাল বর্ণের আলোর।

31. কাঁচের স্ল্যাব ও লেন্সের মধ্যে পার্থক্য কি?
উত্তর: কাচের স্ল্যাবের দুই বিপরীত তল সমান্তরাল হয় বলে আলোকরশ্মির কোন চ্যুতি হয় না।কিন্তু লেন্সের ক্ষেত্রে আপতিত রশ্মি চ্যুতি হয় অর্থাৎ আপতিত রশ্মি কখনোই প্রতিসৃত রশ্মির সমান্তরাল হয় না।

যে কোন লেন্স বস্তুর প্রতিবিম্ব গঠন করতে পারে কিন্তু কাঁচের স্ল্যাব বস্তুর প্রতিবিম্ব গঠন করতে পারে না।

32. লেন্সের f সংখ্যা বলতে কী বোঝো?

উত্তর: ক্যামেরা লেন্স এর f সংখ্যা বলতে লেন্সের ফোকাস দৈর্ঘ্য F এবং লেন্সের উন্মেষের ব্যাসের D অনুপাত কে বোঝায়। f=F/D

33. প্রিজমে কোন বর্ণের আলোর চ্যুতি সর্বাধিক?
উত্তর: বেগুনি

34. সবুজ কাজ দিয়ে লাল বর্ণের বস্তু কেমন দেখাবে?
উত্তর: কালো দেখাবে।

35. সাদা আলো কি ধরনের আলো?
উত্তর: বহুবর্ণী আলো।

36. একবর্ণী আলোক রশ্মি কাকে বলে?
উত্তর: যে আলোক রশ্মী একটি বর্ণ দ্বারা গঠিত তাকে একবর্ণী আলোক বর্ষী বলে। যেমন লাল আলোক রশ্মী।

37. সাদা জামাকাপড় কাচার পর একটু নীল রং দেওয়া হয় কেন?
উত্তর: সাদা জামাকাপড় অনেকবার কাচার ফলে আয়রন এর উপস্থিতির জন্য সামান্য হলুদ হয়ে যায়। হলুদ ও নীল বর্ণ পরস্পরের পরিপূরক বর্ণ। সেজন্য একটু সামান্য হলুদ রং যুক্ত সাদা জামা কাপড়ে একটু নীল রং দিলে সেগুলি অপেক্ষাকৃত বেশি সাদা দেখায়।