নবম শ্রেণি জীবন বিজ্ঞান মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পার্ট ৩ | class 9 Life Science model activity task part 3

আজকে আমরা নবম শ্রেণীর জীবন বিজ্ঞান এর মডেল অ্যাক্টিভিস্ট আজকের পার্ট 3 এর উত্তর নিয়ে আলোচনা করবো যেখানে চারখানা গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন রয়েছে। এছাড়াও আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে পঞ্চম থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত প্রায় সকল বিষয়েই মক টেস্ট নিয়ে এসেছি।নেভিগেশন বার থেকে এডুকেশন সেকশন এর মধ্যে মকটেস্ট রয়েছে। তাহলে শুরু করা যাক আজকের পর্ব।

নবম শ্রেণীর জীবন বিজ্ঞান মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পার্ট 3 উত্তর


নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর লেখাে :

১. সালােকসংশ্লেষে জলের ভূমিকা উল্লেখ করো। পরিবেশে 02 - CO2 এর ভারসাম্য রক্ষায় সালােকসংশ্লেষের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করাে।
উত্তর: সালোকসংশ্লেষে জলের ভূমিকা:
  • (i) জল সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় একটি অন্যতম কাঁচামাল।
  • (ii) সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ার সময় জল বিশ্লিষ্ট হয়ে H+ এবং OH- আয়ন উৎপন্ন করে।OH- আয়ন এর ইলেকট্রন ক্লোরোফিল অনুকে প্রদান করে।
  • (iii) সালোকসংশ্লেষের অন্ধকার দশা কার্বন-ডাই-অক্সাইডকে বিজারিত করার জন্য প্রয়োজনীয় হাইড্রোজেন জল বিশ্লিষ্ট হয়েই উৎপন্ন হয়।
  • (iv) সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় উপজাত পদার্থ রূপে যে অক্সিজেন উৎপন্ন হয় তার উৎস হল জল।

🔸 পরিবেশে অক্সিজেন ও কার্বন ডাই অক্সাইডের ভারসাম্য রক্ষা: বায়ুমণ্ডলে অক্সিজেনের পরিমাণ 20.60 % এবং কার্বন ডাই অক্সাইডের 0.03 % । জীবকুল শ্বসনের জন্য অক্সিজেন গ্রহণ করে এবং কার্বন-ডাই-অক্সাইড পরিত্যাগ করে ; ফলে বায়ুমন্ডলের অক্সিজেনের পরিমাণ কমে এবং কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়ে।সালোকসংশ্লেষের সময় সবুজ উদ্ভিদ কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ এবং অক্সিজেন বর্জন করে ফলে পরিবেশে অক্সিজেন ও কার্বন ডাই অক্সাইডের ভারসাম্য বজায় থাকে।

২. তাপমাত্রা কীভাবে বাষ্পমােচনকে প্রভাবিত করে? বাষ্পমােচনকে প্রয়ােজনীয় ক্ষতিকারক প্রক্রিয়া বলা হয় কেন?

উত্তর: বাষ্পমোচন এর উপর উষ্ণতার প্রভাব: পরিবেশের তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে বায়ুমন্ডলের আর্দ্রতা কমে যায়, ফলে বাষ্পমোচন এর হার বৃদ্ধি পায়। সাধারণত 10 থেকে 25 ডিগ্রি সেলসিয়াস উষ্ণতায় পত্ররন্ধ্র বন্ধ ও খোলার প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রিত হয়। গ্রীষ্মকালে বাষ্পমোচন এর হার বেশি থাকে।

🔸 বাষ্পমোচন কে প্রয়োজনীয় ক্ষতিকারক প্রক্রিয়া বলার কারণ:
বাষ্পমোচন উদ্ভিদের একটি অতিপ্রয়োজনীয় শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া।এই প্রক্রিয়ার সাহায্যে উদ্ভিদ দেহে জল শোষণ, রসের উৎস্রোত, পুষ্টি সরবরাহ ,তাপমাত্রার সাম্যবস্থা, অতিরিক্ত জল ত্যাগের মাধ্যমে জলের সাম্যবস্থা প্রভৃতি প্রভাবিত ও নিয়ন্ত্রিত হয়।আবার বায়ুমন্ডলের আর্দ্রতা কম থাকলে এবং তাপমাত্রা বেশি থাকলে বাষ্পমোচন এর হার বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্ভিদ দেহ থেকে প্রয়োজনীয় জল বেরিয়ে যায়। ফলে দেহের বিভিন্ন বিপাকক্রিয়া ব্যাহত হয়, এমনকি এই অবস্থার দীর্ঘদিন চলতে থাকলে উদ্ভিদের মৃত্যু হতে পারে।সুতরাং বাষ্পমোচন প্রক্রিয়া একদিকে যেমন উদ্ভিদের বিভিন্ন শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া কে নিয়ন্ত্রণ করে, তেমনি অন্যদিকে অতিরিক্ত বাষ্পমোচন এর ফলে উদ্ভিদের মৃত্যু হতে পারে।তাই বিজ্ঞানিক কার্তিক বাষ্পমোচন কে উদ্ভিদের প্রয়োজনীয় ক্ষতি বলে অভিহিত করেছিলেন।


৩. কোনাে মৌলের ম্যাক্রো বা মাইক্লো-নিউট্রিয়েন্ট শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্তির দুটি কারণ উল্লেখ করাে। উদ্ভিদদেহে অপরিহার্য মৌলের যেকোনাে তিনটি সাধারণ কাজ ব্যাখ্যা করাে।

উত্তর: কোন মৌলের ম্যাক্রো বা মাইক্রো-নিউট্রিয়েন্ট শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত হওয়ার দুটি কারণ হলো:
  • (i) ওই মৌল উপাদান গুলি উদ্ভিদের পুষ্টি খুব কম পরিমানে প্রয়োজন হয়।
  • (ii) ওই মৌল উপাদানগুলির অভাবজনিত লক্ষণ গুলি উদ্ভিদ দেহে পরিষ্কারভাবে বোঝা যায় না।
🔸 উদ্ভিদ দেহে অপরিহার্য খনিজ পদার্থের তিনটি সাধারণ কাজ:
  • (i) প্রোটোপ্লাজম গঠন: বিজ্ঞানী হাক্সলে প্রোটোপ্লাজমকে জীবনের ভৌত ভিত্তি রুপে বর্ণনা করেছেন। বিভিন্ন মৌল প্রোটোপ্লাজম গঠনে অংশ নেয় যেমন: কার্বন ,হাইড্রোজেন অক্সিজেন, নাইট্রোজেন, সালফার, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম লৌহ ইত্যাদি।
  • (ii) ক্লোরোফিল সংশ্লেষ: ম্যাগনেসিয়াম ক্লোরাইড অণুর কেন্দ্রীয় ধাতু হিসেবে থেকে ক্লোরোফিল সংশ্লেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এছাড়াও দস্তা, লৌহ ইত্যাদি মৌল গুলিও ক্লোরোফিল সংশ্লেষ অংশ নেয়।
  • (iii) বাফার ক্রিয়া অংশগ্রহণ: মাটি থেকে শোষিত অধিকাংশ খনিজ লবণই অম্লতার পরিবর্তন ঘটায় ।কার্বন ও ফসফেট যৌগগুলির বাফার রূপে কাজ করে অর্থাৎ প্রোটোপ্লাজম এর pH এর পরিবর্তনে বাধা দেয়।

৪. সক্রিয় পরিবহনের বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করাে। ব্যাপন ও অভিস্রবণ এর দুটি পার্থক্য উল্লেখ করাে।

উত্তর: সক্রিয় পরিবহন এর বৈশিষ্ট্য: 
  • (i) এই প্রকার পরিবহনের লবণের আয়নগুলি কম ঘনত্ব যুক্ত স্থান থেকে অধিক ঘনত্বের স্থানে প্রবাহিত হয়।
class 9 Life Science model activity task part 3

  • (ii) ATP অনু বিশ্লিষ্ট হয়ে যে শক্তি নির্গত হয় তা সক্রিয় পরিবহন এ ব্যবহৃত হয়।
  • (iii) এই প্রকার পরিবহনের পদার্থের কোষপর্দা অতিক্রম করার জন্য বিশ্লিষ্ট ATP অণু থেকে শক্তি ব্যবহৃত হয়।
  • (iv) এটি একটি ঊর্ধ্বমুখী প্রক্রিয়া যা ঘনত্বের নতিমাত্রা বিপরীতে ঘটে।
  • (v) এই প্রকার পরিবহনের বাহক প্রোটিন মুক্ত হয়ে পুনরায় দ্রাব কনা সংগ্রহ করে।
Tag: Class 9 Life science Suggestion  | Class 9 Biology Model Activity task part 3  | Class nine Life science Model task answer