Header Ads Widget

বাবা ভেঙ্গার ভবিষ্যদ্বাণী ভারতে সত্য প্রমাণিত হয়েছিল, এমনকি ২০২০ সালেও পৃথিবীতে ভয়াবহ ধ্বংসলীলা হবে

বিখ্যাত  বাবা ভেঙ্গার বিপজ্জনক ভবিষ্যদ্বাণী আবারও খবরে এসেছে।  বাবার ভবিষ্যদ্বাণী অনুসারে, ২০২০ সাল এবার বিপদের লক্ষণ নিয়ে আসছে।  আগামী বছরে বিপর্যয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।  পৃথিবীর জলপ্লাবনের ফলে ইউরোপীয় দেশগুলিতে মুসলিম উগ্রপন্থার হুমকির আশঙ্কা রয়েছে।  ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএএ) সম্পর্কিত চলমান সংঘাতের পরিপ্রেক্ষিতে এই ভবিষ্যদ্বাণীটি ন্যায়সঙ্গত বলে মনে হচ্ছে।

 বুলগেরিয়ার নবী বাবা ভেঙ্গার পূর্ববর্তী অনেক ভবিষ্যদ্বাণী সত্য হয়ে গেছে।  এর মধ্যে রয়েছে সোভিয়েত ইউনিয়নের ভাঙন, ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০০১ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে আক্রমণ, রাজকুমারী ডায়ানার মৃত্যু এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতো বিষয়  বাবা ভেঙ্গার আসল নাম ভেঞ্জেলিয়া পান্ডেভা ডিমিট্রোভা।  তিনি ১৯১১ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এবং ১৯৬৬ সালে তিনি মারা যান।  বাবা বেঙ্গা ১২ বছর বয়সে চোখ হারিয়েছেন।  তখন তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে ভেংগির ভবিষ্যত দেখার জন্য ইশ্বর তাঁর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন।  বাবা ভেঙ্গা মৃত্যুর আগে ৮৫ বছর বয়সে ২০২০ এর জন্য অনেক পূর্বাভাস দিয়েছেন।

 বাবা ভেঙ্গার মতে, ২০২০ সালে ইউরোপের মুসলিম মৌলবাদীরা তাদের শীর্ষে থাকবে।  এর বাইরেও নতুন বছরে হলোকস্ট এবং দুর্যোগের মতো অনেক পরিস্থিতি দেখা দেবে।  দেশে খরা হওয়ারও সম্ভাবনা থাকবে।  তিনি জনগণকে হুঁশিয়ারিও দিয়েছিলেন যে, আগামী বছরে ধর্মের ভিত্তিতে দেশে বিভাজন হতে পারে।  বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষিতে এটি সত্য বলে মনে হচ্ছে।  এ ছাড়া তিনি আরও একটি ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন যা অনুসারে চীন ২০২০ সালে প্রধান পরাশক্তি হিসাবে আবির্ভূত হবে।  ভারত ও রাশিয়াও চীনের পাশাপাশি বিশ্ব শাসন করবে।