কোনো অধ্যায়ের মকটেস্ট, প্রশ্ন-উত্তর কিংবা মতামত এর জন্য → Contact us !

Class 10 geography Model Activity Task part 5 | দশম শ্রেণী ভূগোল মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক 5 | ক্লাস টেন জিওগ্রাফি মডেল এক্টিভিটি পার্ট 5

Class 10 geography Model Activity Task part 5 | দশম শ্রেণী ভূগোল ম অ্যাক্টিভিটি টাস্ক 5 | ক্লাস টেন জিওগ্রাফি মডেল এক্টিভিটি পার্ট 5 August 2021 model

 দশম শ্রেণী ভূগোল মডেল অ্যাক্টিভিটি পার্ট 5 নিউ 2021

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখো :
১.১ যে জলবায়ুতে ঋতু পরিবর্তন হয় না সেটি হলো
ক) ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু।
খ) সাভানা জলবায়ু
গ) মৌসুমী জলবায়ু
ঘ) নিরক্ষীয় জলবায়ু
উত্তর : যে জলবায়ুতে ঋতু পরিবর্তন হয় না সেটি হলো – (ঘ) নিরক্ষীয় জলবায়ু ।

১.২ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করো
ক) চাঁদ, সূর্য ও পৃথিবীর কেন্দ্রের একই সরলরেখায় অবস্থান – মরা কোটাল
খ) পৃথিবীর সাপেক্ষে চাঁদ ও সূর্যের সমকোণে অবস্থান – মরা কোটাল
(গ) চাঁদ ও পৃথিবীর মধ্যে সর্বাধিক দূরত্ব – পেরিজি
ঘ) চাঁদ ও পৃথিবীর মধ্যে সর্বনিম্ন দূরত্ব – অ্যাপোজি
উত্তর : ঠিক জোড়াটি হল – (খ) পৃথিবীর সাপেক্ষে চাঁদ ও সূর্যের সমকোণে তাবস্থান – মরা কোটাল।

১.৩ অতিবিরল জনঘনত্বযুক্ত একটি রাজ্য হলো
ক) পশ্চিমবঙ্গ
খ) গোয়া
গ) উত্তরপ্রদেশ
ঘ) সিকিম
উত্তর : অতিবিরল জনঘনত্বযুক্ত একটি রাজ্য হলো– (ঘ) সিকিম

২. স্তম্ভ মেলাও :

স্তম্ভ স্তম্ভ
২.১ বিশুদ্ধ কাঁচামাল(ক) আটাকামা মরুভূমি
২.২ ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত (খ) তুলো
২.৩ পেরু স্রোত(গ) ইয়াস

উত্তর:
২.১ বিশুদ্ধ কাঁচামাল →(খ) তুলো
২.২ ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত →(গ) ইয়াস
২.৩ পেরু স্রোত → (ক) আটাকামা মরুভূমি

Class 10 geography Model Activity Task part 5 | দশম শ্রেণী ভূগোল মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক 5 | ক্লাস টেন জিওগ্রাফি মডেল এক্টিভিটি পার্ট 5


ক্লাস টেন জিওগ্রাফি মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পার্ট 5

৩. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও:

৩.১ জোয়ার-ভাটার সৃষ্টিতে কেন্দ্র বহির্মুখী বলের প্রভাব উল্লেখ করো।

উত্তর : পৃথিবী তার মেরুদণ্ডের উপর পশ্চিম থেকে পূর্ব দিকে আবর্তন করে চলেছে। এই আবর্তন গতির ফলে সৃষ্ট কেন্দ্র বহির্মুখী বল মহাকর্ষের বিপরীতে কাজ করে। কঠিন ভূভাগ অপেক্ষা জল ভাগে এর প্রভাব বেশী ফলে সমুদ্রের জল বাইরের দিকে বিক্ষিপ্ত হওয়ার প্রবণতা দেখা যায় ।
অতএব চাঁদের আকর্ষণ পৃথিবীর যে অংশে জোয়ার হয় ঠিক তার বিপরীত দিকের প্রতিবাদ অংশে চাঁদের মহাকর্ষ শক্তি অপেক্ষা কেন্দ্ৰবহির্মুখী বল অধিক হওয়ায় সেখানেও জোয়ার সৃষ্টি হয়। এই জোয়ার হল গৌণ জোয়ার যা মুখ্য জোয়ারের তুলনায় কম প্রবল হয়।

৩.২ নিম্নলিখিত বিষয়ের ভিত্তিতে ঘূর্ণবাত ও প্রতীপ ঘূর্ণবাতের মধ্যে পার্থক্য নিরূপণ করো।

(ক) বায়ুর চাপ
(খ) স্থায়িত্ব
(গ) আবহাওয়ার প্রকৃতি।

বিষয়ঘূর্ণবাতপ্রতীপ ঘূর্ণবাত
(ক) বায়ুর চাপঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে নিম্নচাপ ও বাইরে উচ্চচাপ বিরাজ করায় বায়ুপ্রবাহ কেন্দ্রমুখী হয়।প্রতীপ ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে উচ্চচাপ ও বাইরে নিম্নচাপ বিরাজ করায় বায়ুপ্রবাহ কেন্দ্রবহির্মুখী হয়।
(খ) স্থায়িত্বঘূর্ণবাত স্বল্পস্থায়ী হয়।প্রতীপ ঘূর্ণবাত দীর্ঘস্থায়ী হয়।
(গ) আবহাওয়ার প্রকৃতিঘূর্ণবাতের প্রচুর ঝড় ও বজ্র বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাত হয়।প্রতীপ ঘূর্ণবাতের অবস্থানে মেঘমুক্ত, শান্ত, রোদ ঝলমলে আবহাওয়া বিরাজ করে।

৪. ভারতের কোন অঞ্চলে অধিকাংশ কফি উৎপাদন করা হয়? এই বাগিচা ফসল চাষের অনুকূল প্রাকৃতিক পরিবেশের বর্ণনা দাও।

উত্তর : ভারতের কফি উৎপাদনে অধিকাংশই দক্ষিণ ভারতের নীলগিরি পার্বত্য অঞ্চলে কেন্দ্রীভূত। ভারতের কর্ণাটক (প্রথম), কেরল (দ্বিতীয়) ও তামিলনাড়ু (তৃতীয়) এই তিনটি রাজ্যে সর্বাধিক কফি উৎপাদিত হয়। এছাড়াও অন্ধ্রপ্রদেশ ( চতুর্থ ) এর বিশাখাপত্তনমের আরাকুভ্যালি উপত্যকায় কফি উৎপাদিত হয়। কর্ণাটক রাজ্যে দেশের মোট কফি উৎপাদনে তিন-চতুর্থাংশ উৎপাদিত হয়।

কফি বাগিচা ফসল চাষের অনুকূল প্রাকৃতিক পরিবেশ:

1. জলবায়ু কফি চাষের জন্য উষ্ণ ও আর্দ্র জলবায়ু উপযোগী।
(i) উষ্ণতা: 20-30 °সেন্টিগ্রড উষ্ণতা কফি চাষের পক্ষে আদর্শ। উঁচু জমিতে 20-25° সেন্টিগ্রড উষ্ণতা ও নিচু জমিতে 20 - 32 °সেন্টিগ্রড  উষ্ণতা কফি চাষের জন্য আদর্শ।

(ii) বৃষ্টিপাত : 150-250 cm বৃষ্টিপাতের কফি চাষের জন্য প্রয়োজন। গাছের ফল ধরার জন্য নিয়মিত বৃষ্টিপাত প্ৰয়োজন।

(iii) আর্দ্রতা ও কুয়াশা আর্দ্রতা ও কুয়াশা কফি গাছের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে । এই জন্য সামুদ্রিক আর্দ্রতায় দক্ষিণ ভারতের কফি চাষ ভালো হয়।

(iv) সূর্যকিরণ : কফি পাকার জন্য এবং সংগ্রহ করার সময় প্রখর সূর্যকিরণ যুক্ত রৌদ্রোজ্বলা আবহাওয়ার প্রয়োজন।
(v) তুষারপাত ও ঝড় ঝড় ও তুষারপাত কফিগাছের ক্ষতি করে তাই ঝড় ও তুষারপাত মুক্ত আবহাওয়ার
প্রয়োজন।

2. মৃত্তিকা : মৃদু অম্লধর্মী, হিউমাস সমৃদ্ধ ও লৌহ পটাশ যুক্ত ঊর্ধর লাল দোআঁশ মৃত্তিকা কফি চাষের জন্য আদর্শ।
3.জমির প্রকৃতি : গাছের গোড়ায় জল দাঁড়ালে কফির ক্ষতি হয়। তাই পাহাড়ি ঢালু জমি কফি চাষের জন্য উপযোগী। দক্ষিণ ভারতের পাহাড়ি অঞ্চলে এই জন্য কফি চাষ ভালো হয়।
4. ছায়া প্রদানকারী বৃক্ষ : প্রত্যক্ষ সূর্যকিরণ কফি গাছের পক্ষে ক্ষতিকর। তাই কফি বাগান গুলিতে কলা ভুট্টা প্রভৃতি ছায়া প্রদানকারী বৃক্ষ লাগানো হয় ।

Web & App Developer, Blogger , Youtuber , VRP @Social Audit Unit-WB Govt

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Please Comment , Your Comment is Very Important to Us.