অষ্টম শ্রেণী ভৌত বিজ্ঞান ও জীবন বিজ্ঞান প্রশ্ন উত্তর। Class 8 Ray and Martin question bank solve physical science and life science | শ্বেত রক্ত কণিকার কাজ কি


অষ্টম শ্রেণী ভৌত বিজ্ঞান প্রশ্ন উত্তর। আমরা এখানে অষ্টম শ্রেণীর ভৌত বিজ্ঞান রায় ও মার্টিন প্রশ্ন বিচিত্রা এর ব্যানার্জি ডাঙ্গা হাই স্কুলের উত্তরপত্র প্রকাশ করলাম।অধ্যায় গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ভাজক কলা ও স্থায়ী কলার পার্থক্য আমরা পরিবেশন করলাম।

অষ্টম শ্রেণী ভৌতবিজ্ঞান জীবনবিজ্ঞান প্রশ্ন উত্তর


অষ্টম শ্রেণী ভৌত বিজ্ঞান BANERJEEDANGA HIGH SCHOOL 2020 । Class 8 physical and  life science


1. সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখাে :

(i) তরলের ঘনত্ব বাড়লে প্লবতার মান - (a) কমে, (b) বাড়ে, (c) একই থাকে, (d) প্রথমে কমে ও পরে বাড়ে।
উত্তর: তরলের ঘনত্ব বাড়লে প্লবতার মান বাড়ে।

(ii) প্রশম অক্সাইডের একটি উদাহরণ হল – (a) Al2O3 (b) CO2 (c) CO (d) NiO

উত্তর: CO

2 .শূন্যস্থান পূরণ করে :

(i) পৃথিবীতে কোনাে বস্তুর ওজন 58.8 N হলে, তার ভর হবে _____________Kg ।
উত্তর: (58.8÷9.8) কেজি = 6 কেজি।

(ii) স্টেইনলেস স্টিলের প্রধান উপাদান হল ________|
উত্তর: স্টেইনলেস স্টিলের প্রধান উপাদান হলো লোহা।

3. নীচের প্রশ্নগুলির অতি-সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

টেবিলের উপর রাখা একটি বস্তুকে 5 N বল দিয়ে ঠেলা হলে সেটি সরার উপক্রম হয়। এই ঘটনার ওপর ভিত্তিকরে নিচের ছকটি পূরণ করাে ।
উত্তর:
🔸 প্রযুক্ত বল যখন শুনি তখন স্থিত ঘর্ষণ এর মান শূন্য।
🔸 প্রযুক্ত বল যখন 2N তখন স্থিত ঘর্ষণ এর মান 2N

(ii) ফেরাস সালফাইডের সঙ্গে যুক্ত H2SO4 এর বিক্রিয়ায় কোন গ্যাস পাওয়া যায় ?
উত্তর: হাইড্রোজেন সালফাইড (H2S) গ্যাস উৎপন্ন হয়।

(5) 5 kg ভরের একটি বস্তুর ওপর 10 N বল প্রয়ােগ করা হল। বস্তুটির ত্বরণ কত হবে?
উত্তর: বস্তুটির ত্বরণ = (10 ÷ 5) মি/সে2 = 2 মি/সে2

অষ্টম শ্রেণীর জীবন বিজ্ঞান প্রশ্ন বিচিত্রা এর উত্তর 2020


1. নীচের প্রশ্নগুলির অতি-সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

(i) কত খ্রিস্টাব্দে কোন বিজ্ঞানী কোশ আবিষ্কার করেন?
উত্তর: 1665 খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী রবার্ট হুক কোষ আবিষ্কার করেন।

(ii) একটি এককোষী জীবের নাম লেখা।
উত্তরঃ একটি এককোষী জীব হলো অ্যামিবা।

 (iii) সবচেয়ে বড় কোষের নাম কী?
উত্তর: সবচেয়ে বড় কোষ উট পাখির অনিষিক্ত ডিম।

(iv) ইলেকট্রন অণুবীক্ষণ যন্ত্রের বিবর্ধন ক্ষমতা কত?
উত্তর: ইলেকট্রন অণুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে বস্তুকে 100 থেকে 40 লক্ষ গুণ বড় দেখায়।

(v) শ্বেত রক্তকণিকার কাজ কী?

শ্বেত রক্ত কনিকার কাজঃ


  • ii. মনোসাইট ও নিউট্রিফিল  ফ্যাগোসাইটোসিস প্রক্রিয়ায় জীবাণু ভক্ষণ করে ধ্বংস করে ।
  • ii. নিউট্রোফিলের বিষাক্ত দানা জীবাণু ধ্বংস করে ।
  • iii.দানাদার লিকোসাইট হিস্টাসিন সৃষ্টি করে যা দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে । 
  • iv.লিস্ফোসাইট অ্যান্টিবডি সৃষ্টি করে রোগ প্রতিরোধ করে।


(vi) রেচন বলতে কী বোঝো?
উত্তর: যে শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়ায় জীবদেহে বিপাক ক্রিয়ায় উৎপন্ন ক্ষতিকারক পদার্থ গুলিকে দেহ থেকে বের করে দেয় তাকেই রেচন বলে। রেচন একটি অপচিতিমূলক বিপাক।

(vii) যোগ কলার কাজ কী?
যোগ কলার কাজ:

  • যোগ্যতা বিভিন্ন অঙ্গ তন্ত্রের মধ্যে সমন্বয় সাধন করে।
  • যোগ কলার মাধ্যমে হরমোন উৎসেচক বাহিত হয়। যেমন রক্ত।
  • যোগ কলা দেহের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।ত
  • তরলযোগকলা শোষিত খাদ্যসহ বিভিন্ন দ্রবীভূত পদার্থ দেহের বিভিন্ন অংশে পরিবহন করে ।রে
  • রেচন পদার্থ পরিবহন ও বহিষ্করণ করে বলে একে পরিবহন বা সংবহন কলাও বলা হয়।


(vill) ভাজক কলা ও স্থায়ী কলার প্রধান পার্থক্য লেখাে।
ভাজক কলা স্থায়ী কলা
ভাজক কলার কোষ গুলি বিভাজনের সক্ষম। স্থায়ী টিস্যুর কোষগুলো সাধারণত বিভাজনে অক্ষম।
ভাজক কলার কোষ সর্বদা জীবিত। টিস্যুতে দু’রকম কোষ থাকে- জীবিত ও মৃত।
ভাজক কলার কোষ গুলিতে ধাত্রের পরিমাণ বেশি। স্থায়ী কলার কোষ গুলিতে ধত্রের পরিমাণ কম।
মৃত কোষ থাকে না। মৃত কোষ প্রোটোপ্লাজমবিহীন।
কোষগুলির প্রাচীর অপেক্ষাকৃত পাতলা । কোষগুলোর প্রাচীর অপেক্ষাকৃত স্থূল অর্থাৎ বেশ পুরু।
কোষে সাধারণত কোনো কোষ গহ্বর থাকে না থাকলেও আকারে ক্ষুদ্র ও সংখ্যায় অগণিত । কোষ গহ্বর অপেক্ষাকৃত বড় ও সংখ্যায় কম।
বড় আকারের নিউক্লিয়াস থাকে। নিউক্লিয়াস স্বাভাবিকের চেয়ে ছোট এবং কোষের এক পাশে অবস্থান করে।
টিস্যু সাধারণত মূল ও কান্ডের অগ্রভাগে অবস্থান করে। এই কলার অবস্থান উদ্ভিদের পর্বমধ্য ফলের বীজ ইত্যাদি অংশে।
আন্তঃকোষীয় ফাঁক থাকে । আন্তঃকোষীয় ফাঁক থাকে না৷

2. নীচের প্রশ্নগুলির অতি-সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

(i) নিউক্লিয়াসের কটি উপাদান ও কি কি?
উত্তর: নিউক্লিয়াসের চারটি উপাদান ।যথাক্রমে:

  1. নিউক্লিওলাস।
  2. নিউক্লিওপ্লাজম বা নিউক্লিয় রস।
  3. নিউক্লিয় মেমব্রেন বা নিউক্লিও পর্দা।
  4. নিউক্লিয় জালক।


(ii) কোষপর্দা ও কোষ প্রাচীরের পার্থক্য লেখা।

কোষ পর্দাকোষ প্রাচীর
1. কোষ পর্দা সজীব1. কোষ প্রাচীর মৃত
2. সকল উদ্ভিদ ও প্রাণী কোষের কোষ পর্দা থাকে।2. কেবলমাত্র উদ্ভিদ কোষ , ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাকের কোষে কোষ প্রাচীর থাকে
3. কোষ পর্দা অর্ধভেদ্য পর্দা।3. কোষ প্রাচীর অভেদ্য শক্ত প্রাচীর।
4. দুটি প্রোটিন স্তরের মাঝে একটি লিপিডের স্তর থাকে।4. তিনটি স্তরে বিন্যস্ত।
5. প্রোটিন ও লিপিড দ্বারা গঠিত।5. সেলুলোজ , হেমিসলুলোজ ইত্যাদি দ্বারা গঠিত।
6. কোষ পর্দা থেকে বিভিন্ন কোষীয় অঙ্গানু সৃষ্টি হয়।6. কোষ প্রাচীর থেকে কোন কোষীয় অঙ্গানু সৃষ্টি হয় না।
7. প্রধান কাজ হলো কুসংগন ওকে রক্ষা করা এবং বিভিন্ন বস্তুর যাতায়াত নিয়ন্ত্রণ করা।7. প্রধান কাজ হলো কোষের দৃঢ়তা প্রদান ,আকার ও আয়তন নিয়ন্ত্রণ।