প্রচেষ্টা প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করবেন । প্রচেষ্টা প্রকল্পের অ্যাপ কোথায় ডাউনলোড করবেন

প্রচেষ্টা প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এক অভিনব উদ্যোগ।মজুর, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তা করার জন্য এই প্রকল্পের উদ্ভাবন। পশ্চিমবঙ্গ সরকার এক নতুন যােজনা চালু করেছে। যে সমস্ত শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিকরা এই করােনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য তাদের রােজগার হারিয়েছে, তাদের আর্থিক সহায়তা করবে। পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

প্রচেষ্টা প্রকল্পের মোবাইল অ্যাপ এর ডাউনলোড লিংক নিচে দেওয়া আছে।
প্রচেষ্টা প্রকল্প চিত্র

সেই সমস্ত শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিকরা এই অনুদান পাবে যাদের রােজগারের আর অন্য কোনাে উপায় নেই এবং সেইজন্য তারা আতান্তরে পড়েছে।

 প্রত্যেক আবেদনকারী শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক মাত্র একবারই ১০০০ টাকা অনুদান পাবে।

প্রচেষ্টা প্রকল্পে আবেদনপত্র জমা দেওয়ার নিয়ম ও নির্দেশাবলী:


যে কোনাে শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক যারা পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী সদস্য, যারা করােনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য কাজ হারিয়ে খুবই দুর্দশার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন এবং যাদের রােজগারের অন্য কোনাে উপায় নেই, তারা এই নিম্নলিখিত শর্তগুলাে মানলে তবেই এই আবেদন করার জন্য উপযুক্ত বলে গণ্য হবে।

শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী সদস্য হতে হবে।

যে সমস্ত শ্রমিকরা কৃষিকাজের সঙ্গে যুক্ত নন বা যারা কোনাে নিয়ােগকর্তার অধীনে না থেকে নিজেরাই কাজ করেন - সরকারি বা বেসরকারি।

শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক এই রাজ্যের অন্য কোনাে সামাজিক যােজনা যেমন সামাজিক পেনশন যােজনা (বৃদ্ধ, বিধবা ও বিকলাঙ্গ পেনশন), সামাজিক সুরক্ষা যােজনা (এসএসওয়াই) ইত্যাদির অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন না।

পরিবারের যে কোনাে একজন সদস্যই এই যােজনার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এই যােজনার অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন স্বামী, স্ত্রী ও অবিবাহিত সন্তানরা।

একটা মােবাইল নম্বর দিয়ে একবারই আবেদন করা যাবে।

প্রত্যেক আবেদনকারী শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক মাত্র একবারই ১০০০ টাকা অনুদান পাবে।

এই আবেদনপত্রটি পুরাে ভরতে হবে এবং আপনার দেওয়া সমস্ত তথ্যাদি এই অনুদান প্রকল্পটির জন্য গৃহীত হবে।

আবেদন করলেই যে আপনি এই অনুদান পাবেন পাবেন তা নয়।

প্রচেষ্টা প্রকল্পের আবেদন করার শেষ তারিখ


এই আবেদনপত্রটি জমা করা যাবে ১৫ই এপ্রিল, ২০২০ থেকে ১৫ মে, ২০২০ পর্যন্ত।

ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট/ কমিশনার/ কলকাতা পৌরসভার সম্মতি লাগবে এই ব্যাপারে যে করােনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য আবেদনকারী প্রকৃতভাবেই তার চাকরি খুইয়েছে বা জীবিকা নির্বাহ করতে পারছে না। এবং রােজগারের আর অন্য কোনাে উপায় নেই।

ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট/ কমিশনারকে বিশ্বাসযােগ্য কারণ দেখাতে হবে। যে আবেদনকারী শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক প্রকৃতভাবেই।

ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট/ কমিশনার/ কলকাতা পৌরসভার সম্মতি লাগবে এই ব্যাপারে যে করােনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য আবেদনকারী। প্রকৃতভাবেই তার চাকরি খুইয়েছে বা জীবিকা নির্বাহ করতে পারছে না এবং রােজগারের আর অন্য কোনাে উপায় নেই।

ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট/ কমিশনারকে বিশ্বাসযােগ্য কারণ দেখাতে হবে। যে আবেদনকারী শ্রমিক, দিনমজুর এবং অন্যান্য শ্রমিক প্রকৃতভাবেই আতান্তরে পড়েছে।

এই যােজনা সংক্রান্ত সমস্ত সিদ্ধান্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ওপর সম্পূর্ণরূপে নির্ভরশীল।

এই যােজনায় নাম নথিভুক্ত করেছেন মানে আপনি সমস্ত শর্তাবলী মানতে রাজি বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।

এখানে দেখে নিন কীভাবে আধার কার্ড, ডিজিটাল রেশন কার্ড বা ভােটার কার্ডের সামনের দিকের ছবি তুলবেন।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার প্রচেষ্টা নামক একটি যােজনা চালু করেছে এবং পশ্চিমবঙ্গের শ্রমিক, দিনমজুর ও পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য ১০০০ টাকার আর্থিক অনুদান ঘােষণা করেছে।

প্রচেষ্টা প্রকল্প
নিচে ক্লিক করে ডাউনলোড করুন


নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলাের উত্তর দিয়ে এই যােজনায়

আবেদনের জন্য আপনার যােগ্যতা প্রমাণ করুন।

বি:দ্র:- একটি পরিবারের স্বামী, স্ত্রী ও অবিবাহিত সন্তানরা এই যােজনার অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন। পরিবারের যে কোনাে একজন সদস্যই শুধুমাত্র আবেদন করতে পারবেন।

সমস্ত তথ্য ইংরেজিতে লেখা বাধ্যতামূলক।


  • আপনি কি আপনার পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী সদস্য?হ্যাঁ অথবা না বাটন টিপে উত্তর দিতে হবে।

  • আপনি সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী?
  • নিচের তিনটি বিকলপ এর মধ্যে একটি দ্বীপে উত্তর দিতে হবে।
  • বেসরকারি
  • সরকারি
  • দুটোর মধ্যে কোনােটাই নয়

  • আপনি কি সরকারের কোনাে যােজনা থেকে সহায়তা পান ?
  • হ্যাঁ অথবা না বাটন টিপে উত্তর দিতে হবে।
  • কোন রকম সরকারি ভাতা বা সুবিধা পান না এমন হলে এই সহায়তা পাওয়ার চান্স বেশি।তাই আপনি যদি অন্য কোন সরকারি সহায়তা পান এমনটি লেখেন তাহলে এই সুবিধা না পেতেও পারেন। সরকারকে সর্বদা সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করুন।
  • যদি আপনি সরকারের অন্য যোজনা থেকে সাহায্য পান তাহলে নিচের বিকল্প গুলির মধ্যে থেকে আপনাকে অবশ্যই বাছতে হবে উপযুক্ত সব তথ্যগুলাে বাছাই করুন।
  • সামাজিক পেনশন প্রকল্প (বার্ধক্য, বিধবা, বিকলাঙ্গ পেনশন)
  • কৃষক, জেলে, কারিগর, মানবিক, লােকশিল্পী পেনশন
  •  কনস্ট্রাকশন কর্মী ও পরিবহন কর্মী পেনশন
  • সামাজিক সুরক্ষা যােজনা (এসএসওয়াই)
  • কৃষক বন্ধু প্রকল্প
  • বিভিন্ন সরকারি, আধা-সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পেনশন।
  • MGNREGA অথবা ১০০ দিনের কাজ
  • অন্যান্য - দয়া করে উল্লেখ করুন।

Download prochesta prakalpa mobile application bellow link



খুবই গুরুত্বপূর্ণ দেখুন | পশ্চিমবঙ্গের বাইরে আটকে থাকা শ্রমিকরা এইভাবে বাড়িতে ফিরতে পারবেন। এখানে ক্লিক করুন অথবা নিচের বাটনে ক্লিক করে রেজিস্টার করুন

পরবর্তীতে আপনাকে নিম্নলিখিত তথ্য দিতে হবে:

  • আপনার পুরো নাম
  • আপনার বাবার নাম
  • লিঙ্গ*
  • আপনার জন্মতারিখ
  • বাসস্থানের তথ্যাদি পশ্চিমবঙ্গে স্থায়ী বাসস্থানের ঠিকানা
  • আপনার নিজের জেলা*
  • বিধান সভা
  • গ্রাম
  • বয়স
  • আপনার ব্লক
  • আপনার পঞ্চায়েত
  • আপনার গ্রামের নাম (বাধ্যতামূলক নয়)
  • পিন কোড (বাধ্যতামূলক নয়)
  • আপনার ডাকঘর (বাধ্যতামূলক নয়)
  • আপনার থানা (বাধ্যতামূলক নয়)

  • পারিবারিক উপার্জন (বাধ্যতামূলক নয়)