Header Ads Widget

পঙ্গপালের হালা | পঙ্গপালের আক্রমণে চাষের ক্ষতি | Locust Swarm | পঙ্গপাল নিয়ে সমস্ত তথ্য জেনে নিন

করোনা ভাইরাসের আবহে মধ্যে আরও এক নতুন বিপদে রয়েছে ভারত। বর্তমানে রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ ও মধ্যপ্রদেশ সহ বিভিন্ন জায়গায় পঙ্গপাল হানা দিয়েছে। পঙ্গপালের গতিপথে যাই করুক না কেন তারা সেগুলো নষ্ট করে। বিশেষকরে ফসল নষ্ট করে দেয়। যার ফলে মানুষের খাদ্যের ঘাটতি দেখা যায়। এখানে সেই পঙ্গপাল সম্পর্কে কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হল।

3rd Person Image Reference

চাষীর শত্রু পঙ্গপালের আক্রমণে চাষের চরম ক্ষতি

পঙ্গপালের আধিক্য বিশেষভাবে দেখা যায় ইরান ও বালােচিস্তানে। ঘাস ফড়িং থেকে বিভিন্ন পরিবর্তন হতে হতে এই পঙ্গপালের জন্ম। বহু দূর ভ্রমণ করতে পারে পঙ্গপাল।

পঙ্গপালের মধ্যে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর প্রজাতি হল ডেজার্ট পঙ্গপাল বা মরুভূমির পঙ্গপাল প্লেগ। সময় বিশ্বের ২০ শতাংশ ফসল নষ্ট করে দিয়েছিল এই পঙ্গপাল। ৬৫টি গরিব দেশ এর প্রভাবে বিশাল ক্ষতির মুখে পড়েছে ১০ ভাগের ১ ভাগ জনবসতির ক্ষতি করেছিল। মরুভূমির পঙ্গপাল’রা এই সময়ে পশ্চিম আফ্রিকা ও ভারতের মরুভূমি অঞ্চলে নিজেদের অস্তিত্ব বজায় রেখেছে। প্রায়। ১৬ মিলিয়ন বর্গ কিমি অঞ্চলজুড়ে অর্থাৎ প্রায় ৩০ টি দেশজুড়ে এই পঙ্গপাল আধিপত্য বিস্তার করছে।

ইতালিয়ান পঙ্গপাল, মরক্কোর পঙ্গপাল ও এশিয়ান অভিবাসী পঙ্গপাল এই ৩ ধরনের পতঙ্গ খাদ্য সুরক্ষা ও জীবনযাপনের ক্ষেত্রে নতুন বিপদ ডেকে এনেছে। মধ্য এশিয়ার পাশাপাশি আফগানিস্তানের উত্তরপ্রান্ত ও দক্ষিণ রাশিয়ায় প্রভাব বিস্তার করেছে এই পতঙ্গ।

পঙ্গপাল দ্রুত নিজেদের সংখ্যা বৃদ্ধি ও গোষ্ঠী তৈরি করতে পারে৷ একদিনে এরা প্রায় গড়ে ১৫০ কিমি অঞ্চল উড়ে যেতে সক্ষম ৷ মাত্র ৩ মাসেই এরা নিজেদের উৎপাদন ক্ষমতা ২০ গুণ বাড়াতে সক্ষম৷ একটা পূর্ণাঙ্গ পঙ্গপাল। নিজের ওজনের সমপরিমাণ ওজনের খাদ্য গ্রহণ করতে পারে৷ বলা যেতে পারে একদিনে একটি পঙ্গপাল ২ গ্রামের বেশি শস্যহানি করতে পারে।

পঙ্গপালের হানা loading
পঙ্গপালের হানা চিত্র : তৃতীয় পক্ষ   

রাষ্ট্রসংঘের আওতাভুক্ত খাদ্য ও কৃষি সংস্থা। নিজেদের পর্যবেক্ষণে দাবি করেছে, ২০২০ সালে পঙ্গপালের হানায় বিশ্বজুড়ে ২.২ বিলিয়ন ডলার শস্যের ক্ষতি হতে পারে। শীতকালীন ফসল বিশেষ করে গম, আলুর মতো শস্য ক্ষতিগ্রস্ত হবে। পঙ্গপালের হানায় ২,৮৮ বিলিয়ন ডলারের গ্রীষ্মকালীন শস্য যেমন তুলা, আখি ইত্যাদি  শস্যের ক্ষতি হতে পারে৷

বিশেষজ্ঞদের মতে, ২ দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড় পঙ্গপালের হানা যা ভারতে খাদ্য সুরক্ষার প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করেছে ও প্রচুর শস্যহানি ঘটিয়ে চলেছে এখন যদি এই শস্যহানি রাখা না যায়, তবে অদূর ভবিষ্যতে মাত্র কয়েক বছরের মধ্যেই এটা ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করবে। তাই আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ১০০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করে এই বিপুল পরিমাণে শস্য ক্ষতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে নাহলে শস্য হানি ফলে মানুষের জীবনে সংকট দেখা দিতে পারে৷