Header Ads Widget

নদীয়ার তেহট্ট মহকুমাতে করোনা আতঙ্ক । ফেক নিউজ ছড়ানোতে গ্রেফতার ১

করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক এখন তুঙ্গে এমন অবস্থায় নদীয়ার তেহট্ট মহাকুমা তে ফেক নিউজ নিয়ে আতঙ্কিত তেহটটো মহাকুমার মানুষ।


SDPO TEHATTA Anish Das gupta

নদিয়ার  তেহট্ট মহাকুমার চাঁদেরহাট গ্রাম পঞ্চায়েতে ভুয়ো খবর করোনাভাইরাস নিয়ে, গ্রেফতার 1 জন


তেহট্ট: গত ২০ ফেব্রুয়ারি করোনাভাইরাস সংক্রান্ত হোয়াটসঅ্যাপে একটা মিথ্যা মেসেজ সার্কুলেট হয়েছে ।
মেসেজ টিতে বলার ছিল যে , তেহট্ট মহাকুমার চাঁদেরহাট জিপি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত একাধিক মানুষ।এই মিথ্যা খবর ছড়ানোর সাথে সাথে তা হোয়াটসঅ্যাপে ভাইরাল হয়ে যায় এমনকি ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়ে এলাকার মানুষের কাছে। আতঙ্কে অনেকেই এতটাই আতঙ্কিত হয়ে যায় যে তারা মাছ মাংস খাওয়া বন্ধ করে দেয়। সেই ফেক নিউজ দিতে বলা হয়েছিল যে মুরগির মাংস থেকেই নাকি ছড়িয়েছে এই রোগ।একাধিক মানুষ নাকি আক্রান্ত ও বৃহত্তম হাসপাতালে ভর্তি আছে।
মিথ্যা ডাক্তারের নাম সাজিয়েও ফেক নিউজ কে অনেকটাই বিশ্বাসযোগ্য করে তুলেছিল অভিযুক্ত।

এ ফেক নিউজ এর কথা জানতে পারার সাথে সাথেই তেহট্টমহকুমা শাসক একটি প্রেস কনফারেন্স এর ডাক দেন এবং সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে ও আতঙ্ক দূর করতে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। সম্পূর্ণ ভিডিওটিতে ফেক নিউজটা না ফরওয়ার্ড করার জন্যই তিনি পরামর্শ দেন।

তেহট্ট মহকুমা শাসক অনীশ দাস গুপ্ত বলেন,
এটি পুরোপুরি মিথ্যা খবর ।আপনাদের কাছে  অনুরোধ, আপনারা এই মিথ্যা খবর বিশ্বাস করবেন না এবং আতঙ্কিত হবেন না । ভুল করেও এই মিথ্যা খবর ফরওয়ার্ড করবেন না।
তেহটটো মহকুমা হাসপাতালের সুপার সৈকত বোস বলেন,
 আমাদের হসপিটালে এরকম কোন রোগী নেই। সম্পূর্ণ খবরটি সাজানো একটি ফেক নিউজ।শুভেন্দু বিশ্বাস বা সুভেন্দু দে নামে যে ডাক্তারের কথা ওই ফেক নিউজ টিতে বলা হয়েছিল ,সেরকম কোনোও ডাক্তার আমাদের হাসপাতালে কখনো ছিল না আর এখনো এখনও বর্তমানে নেয়।
তেহট্ট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক (SDPO) জানান,
এটা সম্পূর্ণ একটি ফেক নিউজ। গতকাল রাত থেকে এটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।যে এই ফেক নিউজটা তৈরি করেছে ও ছড়িয়েছে তাকে আমরা ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছি। জিজ্ঞাসাবাদ করছি।যদি আরও কেউ এর সাথে যুক্ত থাকে বা সাহায্য করে থাকে ,তাদেরকেউ আমরা গ্রেপ্তার করব এবং আইনানুগ যে ব্যবস্থা তা আমরা নেব।
উনারা জানান তেহট্ট মহাকুমা ও মহাকুমার মানুষজন এখন বর্তমানে সম্পূর্ণরূপে সুরক্ষিত।সাধারণ মানুষ যেন এটা নিয়ে অযথা দুশ্চিন্তা না করে।


বন্ধুরা এই নিউজটা আপনার বন্ধু বান্ধবীদের সাথে ও পরিবার-পরিজনের সাথে অবশ্যই শেয়ার করুন যাতে তারা যেন সচেতন থাকে আর এই সমস্ত ফেক নিউজ থেকে নিজেদের সর্বদা দূরে রাখে।