Header Ads Widget

সামাজিক নিরীক্ষা কাজে গ্রাম সম্পদ কর্মী রা | সাহস দিতে পাশে প্রশাসন |এনআরসি আতঙ্কে প্রভাবিত |

এনআরসির আতঙ্ক একদিকে যখন গ্রামবাসীদের গ্রাস করছে অন্যদিকে তারই মধ্যে গ্রাম সম্পদ কর্মী দের সামাজিক নিরীক্ষা ও পতঙ্গ বাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণের কাজ চালিয়ে যেতে হচ্ছে।এমত অবস্থায় এনআরসি আতঙ্কিত গ্রামবাসীদের হাতে আশা কর্মী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সরকারি কর্মীদের হেনস্থা শিকার হতে হচ্ছে। এইজন্য সরকার বিভিন্ন রকম সমীক্ষার কাজ পর্যন্ত বন্ধ রেখেছে।

নওদা ব্লকের ভিআরপি কর্মীদের নিয়ে বৈঠক।( চিত্র ক্রেডিট ঃ কল্যাণ চন্দ্র)

আগামী 26 শে জানুয়ারি পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা জারির মধ্যেই মাঠে নেমে সমীক্ষা করতে চলেছেন গ্রাম সম্পদ কর্মী বা ভিলেজ রিসোর্স পারসন রা। ওইসব কর্মীদের সাহস জোগাতে বিশেষ সভার আয়োজন করল নওদা ব্লক প্রশাসন। শনিবার থেকে মাঠে নামছেন নওদা ব্লকের প্রায় 83 জন গ্রাম সম্পদ কর্মী। এনআরসি আতঙ্কে নওদা ব্লকের আশা কর্মী থেকে আইসিডিএস কর্মী হেনস্থার পর উপভোগ তাদের বাড়িতে গিয়ে সমীক্ষা করতে যখন কেউ চাইছেন না ঠিক সেইসময় সরকারি গৃহনির্মাণ থেকে বিভিন্ন ভাতার কাজে সমীক্ষা তথা সামাজিক নিরীক্ষা করতে মাঠে নামতে হচ্ছে গ্রাম সম্পদ কর্মীদের।

গ্রাম সম্পদ কর্মী রা কিভাবে সাধারণ মানুষকে বুঝিয়ে এই সমস্যা থেকে রেহাই পাবে তাই ছিল এই সভার মূল আলোচ্য বিষয়। এই বিশেষ সভাতে নওদা ব্লক প্রশাসন গ্রাম সম্পদ কর্মীদের বিশেষভাবে সাহস জোগানোর চেষ্টা করেছে। তবুও মাঠে নামতে সাহস পাচ্ছেন না গ্রাম সম্পদ কর্মীরা। যে সব কর্মীরা এতদিন সাধারণ মানুষের সেবাতেই কাজ করে এসেছে সাধারণ মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলে এসেছে অথচ সেই সব কর্মীরাই যখন মাঠে নামতে ভয় পাচ্ছে তা অত্যন্ত একটি স্পর্শকাতর বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। নওদা গ্রাম পঞ্চায়েতের ভি আর পি দের ভিবিডি সুপারভাইজার আনন্দ হালসানা বলেন,
এনআরসি নিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক রয়েছে। প্রতিনিয়ত গ্রামের পাড়ায় পাড়ায় আশা কর্মীরা পরিষেবা দেন। অথচ তারা হেনস্থার মুখে পড়ছেন। আইসিডিএস কর্মীরাও হেনস্থা হচ্ছেন। নিরাপত্তার অভাব রয়েছে বলে অনেকে মনে করছেন। সে কারণে সামাজিক নিরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু প্রশাসন বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে শনিবার থেকে গ্রাম সম্পদ কর্মীদের মাঠে নামতে হবে।
অন্যদিকে জেলা সামাজিক নিরীক্ষা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক সুবীর দাস বলেন ,
ব্যক্তিগত কোনো তথ্য নিচ্ছেন না।তারা প্রতিটি পঞ্চায়েত থেকে তালিকা নিয়ে উপভোগ তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সামাজিক নিরীক্ষা সমীক্ষা চালাবেন। 100 দিনের কাজ ঠিকমতো হয়েছে কিনা, কাজের মজুরি ঠিকমতো পেয়েছে কিনা, বিধবা ও বার্ধক্য ভাতা ঠিকমতো পেয়েছে কিনা ও সরকারি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় প্রাপ্ত অর্থ কে সঠিক নিয়মে পেয়েছেন ও ব্যবহার করেছেন কিনা ইত্যাদির নির্দিষ্ট কতগুলি বিষয়ে সমীক্ষা চালাবেন। আগামী দশ দিন ধরে চলবে এই সমীক্ষা। তাই বিপদে পড়ার কথা নয়।
অন্যদিকে নওদা ব্লক এর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক মাননীয় কৃষ্ণ চন্দ্র দাস বলেন ,
ওই ভিআরপি কর্মীরা মানুষের স্বার্থে গ্রামে যাবে তাই মানুষের উচিত তাদের যথাযথ ভাবে সাহায্য করা।
আরো পড়ুন: সামাজিক নিরীক্ষা? সামাজিক নিরীক্ষা ইতিহাস কি?

আরো পড়ুন:  ভিআরপি নিউজ || MGNREGA সম্পর্কিত  সামাজিক নিরীক্ষার পাবলিক হিয়ারিং হয়ে গেল দিমাপুরে..

গ্রাম সম্পদ কর্মী কারা জানতে নিচের ভিডিওটি দেখতে পারেন।


আপনি সামাজিক নিরীক্ষা সম্পর্কে কতটা জানেন ? এই কুইজে অংশগ্রহণ করুন