Header Ads Widget

ভয়াবহ সাইক্লোনিক ঝড় ফনি আসছে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে ।

ভয়াবহ সাইক্লোনিক ঝড় ফনি আসছে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে । রেড অ্যালার্ট জারি। ঘন্টায় 200 কিলোমিটার বেগে হতে পারে ধ্বংসলীলা ।




পশ্চিম কেন্দ্রীয় ও দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের উপকূলে অত্যান্ত প্রচন্ড সাইক্লোন ঝড় সানি গত ছয় ঘণ্টার মধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিমে 7 মিটার গতিতে চলে গিয়ে 30 এপ্রিল পশ্চিমবঙ্গ পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি বঙ্গোপসাগরের 13 ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশ ও 84 ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমার কাছাকাছি প্রায় 700 কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং 400 কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব বিশাখা এর কাছাকাছি আসছে।
তেশরা মেয়ে ওই বিধ্বংসী ঝড় পশ্চিমবঙ্গে আসবে বলে আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে।
ইতিমধ্যে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। এটি আরও তীব্রতর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এবং উত্তর-পূর্ব দিকে দুপুর একটা পর্যন্ত এবং গোপালপুর ও চাঁদ বাড়ির মধ্যবর্তী ওড়িশা কষ্টের পুনর্নবীকরণ এর সম্ভাবনা রয়েছে। তেশরা মে বিকেলে পৌর দক্ষিনে গতিবেগ সর্বোচ্চ 175 থেকে 185 কিলোমিটার পার হয়ে দুশো পাঁচ কিলোমিটারে পৌঁছাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কিভাবে প্রস্তুত থাকবেন ও নিরাপদ থাকবেন

  • আপনার টিভি অথবা রেডিও চালু রাখুন।আপনি অল ইন্ডিয়া রেডিও এবং অন্যান্য স্থানীয় উৎস থেকে সর্বশেষ আবহাওয়ার আপডেট এবং জরুরী নির্দেশাবলী পাবেন।
  • বাড়ির বাইরে থাকায় নিরাপদ এবং এমন কিছু যা আপনাকে উড়িয়ে নিয়ে যেতে পারে তার কাছাকাছি থাকবেন না।
  • 15 মিনিটের মধ্যে সর্বোচ্চ কোন স্থানে আপনি পৌঁছাতে পারবেন তা জেনে রাখুন।
আপৎকালীন ব্যবহার্য জিনিসপত্র সর্বদা রেডি রাখুন যেমন মোবাইল ফোন টর্চ লাইট রেডিও ব্যাটারি দেশ্লাই মোমবাতি খাবার জল এবং ফার্স্ট এইড ।

ভিডিও দেখতে নিচে ক্লিক করুন
👉 Click Here


ঝড়ের সময় কি করবেন?

  • কেবলমাত্র সেই দিক দিয়েই হাঁটবেন যেদিক দিয়ে বন্যার জল বইছে না। লাঠির সাহায্যে জলের গভীরতা মেপে চলতে পারেন।
  • যদি বন্যার সম্ভাবনা দেখেন তাহলে উচ্চতর জায়গায় যান।
সাইক্লোন সতর্ক বার্তা কি ?
ঘূর্ণিঝড়ের কমপক্ষে 24 ঘণ্টা আগে অথবা ঘূর্ণিঝড় উপকূল থেকে 500 কিলোমিটারের মধ্যে যখন অবস্থিত হয় সেই সময় মানুষকে সেই ঝড়ের বিষয়ে সতর্ক করাই হল সাইক্লোন সতর্কবার্তা।
সুপার সাইক্লোন ঝড় 
  • ক্ষতির সম্ভাবনা: আবাসিক ও শিল্প ভবন এর ব্যাপক কাঠামোগত ক্ষতি । যোগাযোগ ও শক্তি সরবরাহ এর বিঘ্নতা। বড় মাত্রায় বন্যা ও সমুদ্রের জল নিঃশেষিত । উড়ন্ত ধ্বংসাবশেষ পূর্ণ বায়ু।
  • কর্ম প্রস্তাব : মাছ ধরার কাজ স্থগিত রাখা । উপকূলীয় জনসংখ্যার স্থানান্তর কর ন ।
  • আক্রান্ত এলাকার মানুষ ঘরের মধ্যে থাকা ।
  • কাঁচা বাড়ির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি । গাছের শাখা ভেঙ্গে বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ লাইন এর ক্ষতি ।