গ্রাম সম্পদ কর্মীরা করবে এবার এই কাজগুলো।

গ্রাম সম্পদ কর্মীরা করবে এবার এই কাজগুলো।

রেশনের দোকানে এবার হবে সামাজিক নিরীক্ষা সমস্যায় পড়বেন অসাধু ডিলার গণ।



  • পূর্বে গ্রাম সম্পদ কর্মী না তাদের সামাজিক নিরীক্ষা কাজটি করেছে ।এবছরও সেই কাজটি হবে ।কুড়ি দিন এর আগে হত 15 দিন এই পাঁচ দিন কিসের জন্য বেশি এই পাঁচ দিন তারা দোকানের নিরীক্ষার জন্য পাবে অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে রেশনের দোকানে এবার হবে অডিট করার জন্য বিশেষ form দেওয়া হবে। তাতে থাকবে কতগুলো প্রশ্ন যে প্রশ্নগুলোর এবং সাধারন মানুষকে করা হবে সেই প্রশ্নের উত্তর গুলো লিখে পাঠানো হবে সোশাল অডিট অফিসে  

  • VRP রা আরো অনেক ধরনের কাজ করবে যেমন কাজ করবে ।প্রসঙ্গত উল্লেখ করব,  সেটা নির্ভর করবে কোন ব্লক সেই কাজটি করতে ইচ্ছুক তার উপর । বিষয়টি ভালো করে বোঝার জন্য নিচের লিংকে ক্লিক করুন এবং ইউটিউব ভিডিও টি দেখতে পারেন । 

গ্রাম সম্পদ কর্মী দের রেশনের দোকানে সার্ভে করার জন্য দেয়া হবে পাঁচটি দিন। দেয়া হবে তিন ধরনের ফর্ম। প্রথম ধরনের ফল থাকবে সাধারণ গ্রাহকদের জন্য। কমপক্ষে 50 জন প্রতি ডিলার এর ক্ষেত্রে সেই ফরম পূরণ করবে। ফর্মে থাকবে ওই গ্রাহকের কার্ডের নম্বর তার প্রাপ্ত উপাদানের পরিমাণ এবং ডিলার সম্পর্কিত কতগুলো প্রশ্নের উত্তর। প্রশ্ন করা হবে ডিলার কখন দোকান খুলে এবং সবকিছু সঠিকভাবে দেয় কিনা । দ্বিতীয় ফ্রম থাকবে ওই ডিলার যে অঞ্চলে থাকেন সেখানকার প্রত্যেক পঞ্চায়েত সদস্যের জন্য। প্রত্যেক পঞ্চায়েত সদস্য কেউ ওই একই প্রশ্নগুলো করা হবে এবং তার কাছ থেকে স্বাক্ষর নেওয়া হবে। তৃতীয় ফরমটি থাকবে ডিলার এর জন্য ।

        এক্ষেত্রে ডিলারের কাছ থেকে জানতে চাওয়া হবে মোট উপভোগ তার সংখ্যা। কোন ধরনের উপভোক্তা কতজন আছে । তার দোকানের সামনে ঠিকমতো বোর্ড আছে কিনা । ডিলার এর মাসিক আয় কত হয় । সাধারণ মানুষের জন্য কি করা উচিত ইত্যাদি।

          এই সমস্ত ফর্ম গুলো পূরণ করার পর জেলা সোশ্যাল অডিট অফিসে জমা দিতে হয়। এরপরে মোটামুটি এক মাসের মধ্যেই উদ্দিষ্ট ব্লকে একটি বিশেষ সভা হয় যেখানে উঠে আসা সমস্যাগুলো পাঠ করে শুনানো হয়। সমস্যা গুলোর সমাধান ওই সভাতে না হলে তা জেলাস্তরে সমাধানের জন্য পাঠানো হয়। জেলাস্তরে সমস্যাগুলির সমাধান করার চেষ্টা যথাসাধ্য করা হয়। তবুও যদি তা সমাধান করা না যায় তবে তা রাজ্যস্তরে পাঠানো হয় ।

           সার্ভে থেকে বিভিন্ন রকমের সমস্যা উঠে আসে । বিভিন্ন উপভোগ তারা তাদের খাদ্য দ্রব্য কম পাওয়া ঠিকমতো দোকান না খোলা এবং ডিলারের খারাপ ব্যবহারের কমপ্লেন জানায়। যা মোটেই ভালো ইঙ্গিত নয় । নিয়মে বলা আছে সপ্তাহে 5 দিন সম্পূর্ণ এবং একটি অর্ধ দিন দোকান খোলা রাখতে হবে যা মোটেই দেখা যায় না। তাছাড়াও খাদ্যদ্রব্যের মান অত্যন্ত খারাপ বলে বিভিন্ন রকমের কমপ্লেন আসে । ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার বিল দেওয়ার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা আনার চেষ্টা করছেন গোপন সূত্র মারফত খবর।

     নিচের লিংকটিতে ক্লিক করলেই সম্পূর্ণ ভিডিওটি এই বিষয়ে দেখতে পাবেন।

https://youtu.be/OotPpyquDkY

VRP রা শুধু এই সমস্ত কাজ গুলি ছাড়াও আরো অন্যান্য ধরনের কাজ গুলি করবে যে সম্পর্কে আমি পরবর্তীতে লিখব।